গোবিন্দগঞ্জ পৌর নির্বাচন: কে হচ্ছেন পৌর পিতা

ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭

গোবিন্দগঞ্জ পৌর নির্বাচন: কে হচ্ছেন পৌর পিতা

আব্দুল হান্নান আকন্দ, গোবিন্দগঞ্জ ৯:২৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৫, ২০২১

print
গোবিন্দগঞ্জ পৌর নির্বাচন: কে হচ্ছেন পৌর পিতা

ভোট আগামী ৩০ জানুয়ারি। তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার ২৯ হাজার ৯৭৯ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। বেছে নেবেন পৌর পিতা। এ নির্বাচনে বৃহত্তম দুই রাজনৈতিক দলের মনোনীত প্রার্থীসহ মোট পাঁচজন প্রার্থী মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এখন পৌরবাসীর মনে প্রশ্ন কে হচ্ছেন পৌর পিতা? ভোটারদের এই প্রশ্নের সমাধানে ইতোমধ্যে সব প্রার্থী বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, মোট ১৫টি ভোট কেন্দ্রের ৯২টি বুথে ভোটগ্রহণ করা হবে।

এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থীরা হলেন- উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম (নৌকা), পৌর বিএনপির সভাপতি ফারুক আহমেদ (ধানের শীষ), উপজেলা আ.লীগের বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি মুকিতুর রহমান রাফি (নারিকেল গাছ), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আনিসুর রহমান (হাতপাখা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জহুরা খাতুন আনিকা (মোবাইল ফোন)। এ ছাড়াও ৯টি ওয়ার্ডে ৪০ জন কাউন্সিলর প্রার্থী এবং ৩টি সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এদিকে সাধারণ ভোটাররা ভাবছেন, অধিকার ও উন্নয়নের কথা। পৌর উন্নয়ন আর সাধারণ নাগরিক সুবিধা যাদের নিকট থেকে পাবে তাদের তারা ভোট দেওয়ার কথা ভাবছেন। কিন্তু ভোট বাধামুক্ত হওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছেন তারা। কেন্দ্রে ভোট হবে নাকি বরাবরের মতো কেন্দ্র দখল আর ভোট বর্জনের দৃশ্য আবারো দেখতে হবে এই প্রশ্ন সবার মুখে মুখে।

আব্দুল আলিম নামে এক ভোটার বলেন, সুখে দুঃখে যাকে কাছে পাব তাকে ভোট দেব। তবে কেন্দ্রে কেন্দ্রে যাওয়ার নিশ্চয়তা চাই।

অন্যদিকে, ভোটারদের চাহিদা অনুযায়ী পৌরসভার সব নাগরিকের সাধারণ সুবিধা দেওয়ার প্রতিশ্রুতির কথা দিয়ে ভোট চাচ্ছেন মেয়র প্রার্থীগণ।

আ.লীগ প্রার্থী খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এর আগে আমি একাধিকবার পৌরসভার কাউন্সিলর পরে জেলা পরিষদের সদস্য হয়ে এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। বিজয়ী হলে মানুষের পাশে থাকব।

বিএনপি প্রার্থী ফারুক আহমেদ বলেন, মানুষ ভোটাধিকার নিয়ে চিন্তিত। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ধানের শীষের বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মুকিতুর রহমান রাফি জানান, ভোটারদের কাছে যাচ্ছি। এতে বেশ সাড়া পাচ্ছি। নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।