‘প্রধানমন্ত্রীর তানে মোর মন কি কহেছে, উপরে আল্লাহ জানে আর মুই জানু’

ঢাকা, সোমবার, ১ মার্চ ২০২১ | ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭

‘প্রধানমন্ত্রীর তানে মোর মন কি কহেছে, উপরে আল্লাহ জানে আর মুই জানু’

বোচাগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ৮:৩৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০২১

print
‘প্রধানমন্ত্রীর তানে মোর মন কি কহেছে, উপরে আল্লাহ জানে আর মুই জানু’

বৃদ্ধ ছাবের আলী নিজের বয়স ঠিকমত বলতে পারেনা, তবে অনুমান করা যায় ৭৫ বছর হবে। ১ ছেলে ৪ মেয়ে। অনেক কষ্টে ছেলে মেয়েদের বড় করে বিয়ে দিয়েছেন। ছেলেকে আলাদা করে দিয়ে তিনি থাকেন খড়ের ছাউনি ঘেরা উপরে নিম্নমানের টিন দিয়ে তৈরি পুকুরপাড়ে সরকারি জমিতে ছোট একটি কুড়ে ঘরে। ঝড় বৃষ্টি এবং কনকনে শীতেও স্বামী-স্ত্রীকে রাত্রি যাপন করতে হয় এই কুড়ে ঘরে। বলছি বোচাগঞ্জ উপজেলার ৬নম্বর রনগাঁও ইউনিয়নের কনুয়া গ্রামের আল্লাদিয়া পুকুরপাড়ের কুড়ে ঘরে বসবাস করা বৃদ্ধ মো. ছাবের আলীর কথা।

বৃদ্ধ বয়সী ছাবের আলী বলেন, একদিন সকালবেলা হামার এইখানে ইউএনও সাহেবকে দেখে চমকি গেছু। হামাক কহিল দাঁড়াও। তারপর বুড়া বুড়ির ফোটু তুলে নিল। ফোটু তুলার পর কহিনু ফোটু দিয়ে কি হবে? ইউএনও কহিল, আপনাদের পাকা ঘর হবে। ঘড়ের কাথা শুনে খুবেই আনন্দ লাগিছে বাপু। কোনদিন ধারণা করিবা পারি নাই প্রধানমন্ত্রী হামাক পাকা বাড়ী দিবে।

প্রধানমন্ত্রীর কথা বলতে গিয়ে তিনি আবেগ আপ্লুত হয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জন্য মোর মন কি কহেছে বাপু উপরে আল্লাহ জানে আর মুই জানু। ওনার তানে মুই সবসময় কাঁদি। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজে প্রধানমন্ত্রীর তানে দোয়া করি। আল্লাহ যেনো ওনাক অনেকদিন বাঁচায় রাখে।

ইউএনও ছন্দা পালের করা প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার পাকা ঘড়ের তালিকায় তার নাম থাকায় বৃদ্ধ ছাবের আলী নিজের ভাষায় এভাবেই কথা বলছিল।

তিনি জানান, মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার আশ্রয়স্থল হিসেবে অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীদের গৃহ দিচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সারাদেশের ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য গৃহ নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। আমার উপজেলায় ৪৩০টি গৃহ নির্মাণ হচ্ছে। প্রকৃত অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের তালিকা করা হয়েছে।