রংপুরে কেরামতিয়া মসজিদ ও মাজারের গাছ ঝড়ে ভেঙ্গে মুসল্লিদের দুর্ভোগ

ঢাকা, শনিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২০ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

রংপুরে কেরামতিয়া মসজিদ ও মাজারের গাছ ঝড়ে ভেঙ্গে মুসল্লিদের দুর্ভোগ

সাইফুল ইসলাম, রংপুর ৯:১৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৮, ২০২০

print
রংপুরে কেরামতিয়া মসজিদ ও মাজারের গাছ ঝড়ে ভেঙ্গে মুসল্লিদের দুর্ভোগ

রংপুরের বিখ্যাত কেরামতিয়া মসজিদ ও মাজারের গাছ ঝড়ে ভেঙ্গে পড়ে যাওয়ায় মুসল্লিদের দুর্ভোগ তৈরি হয়েছে। গত ২৬ সেপ্টেম্বর টানা ১০ ঘণ্টা বৃষ্টিতে রংপুর মহানগরসহ জেলার  অধিকাংশ এলাকা পানিতে তলিয়ে গিয়েছিলো। নগরীর প্রায় ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছিলো। প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে পাড়া-মহল্লার অলিগলি সবই পানিতে ডুবে যায়। সেই সাথে জেলার বিভিন্ন যায়গায় বড় বড় গাছ, ফসলি জমি, পুকুর, বাড়ি ঘরের ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি হয়। একি দিনে রংপুরের ঐতিহ্যবাহি কেরামতিয়া মসজিদ ও মাজারের একটি পুরোনো পিতরাজ গাছ ভেঙ্গে মসজিদের দেয়াল ভেঙ্গে ঘড়ের চালে পড়েছে।

সেদিন (২৭ সেপ্টেম্বর) থেকেই মসজিদের পেশাব খানা, উযু খানা সহ মসজিদে হাজার হাজার মুসল্লির চরম বিঘœতা সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) জুম্মার নামাজে হাজার হাজার মুসল্লি কি ভাবে নামাজ পড়বে সে বিষয়ে চরম উদ্বিগ্নে রয়েছে মসজিদ কমিটি।

স্থানীয়ভাবে জানা গেছে, মসজিদের সম্পত্তি ওয়াকফ্ হওয়ায় আইনী জটিলতায় গাছটি কাটতে পারছেনা বলে জানিয়েছে।

মসজিদের খতিব, মাওলানা মোহাম্মদ বায়জিদ আহম্মেদ দ্রুত গাছটি অপসারণ করা প্রয়োজন বলে প্রশাসনের সহযোগীতা প্রত্যাশা করেছেন। মসজিদের মুয়াজ্জিন মাওলানা মোমিন বলেন, ভেঙ্গে পড়া গাছটি অপসারণ ছাড়া জুম্মার নামাজে চরম বিঘ্নতা দেখা দিতে পারে। এলাকার কাউন্সিলর লাইকোসহ সচেতন রংপুরবাসী যেকোন মূল্যে গাছটি অপসারণ করার দাবি জানিয়েছেন।