মানবিক আমেনার ২০ বছর

ঢাকা, শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১১ আশ্বিন ১৪২৭

মানবিক আমেনার ২০ বছর

আজও জানা যায়নি তার ঠিকানা

নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ১০:২৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২০

print
মানবিক আমেনার ২০ বছর

সকাল থেকে রাত অবধি ব্যস্ততা। লক্ষ্য বাজারের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের সামনের অংশ ও রাস্তা পরিষ্কার করা। যেন দম ফেলার ফুসরত নেই। আপন মনে করে যান পরিচ্ছন্নতার কাজ। প্রায় ২০ বছর ধরে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ অফিসপাড়া ও বাজারে পরিচ্ছন্নতাকর্মীর কাজ করে আসছেন মানসিক ভারসাম্যহীন আমেনা। আমেনা নামটি এলাকাবাসীর দেওয়া। অনেকেই তাকে জটি পাগলী বলে ডাকেন। আসলে তার নাম-পরিচয় কেউ জানেন না। আমেনার বর্তমান বয়স প্রায় ৪৫ বছর। তিনি নবাবগঞ্জ উপজেলা সদরে প্রায় ২০-২২ বছর আগে হঠাৎ উদয় হন।

প্রথমদিকে অনেকে তার সঙ্গে কথা বলে পরিচয় জানার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তার ভাষা কেউ বুঝতে পারেননি। ফলে তার পরিচয় শনাক্ত করতে কেউ পারেননি। কেউ কোনো দিন তার খোঁজ নিতেও আসেননি। উপজেলার রামপুর বাজারের ব্যবসায়ী সহিদুল ইসলাম জানান, আমেনা সবার প্রিয় একজন নারী। তাকে সবাই সম্মান করে। আমেনা নিয়মিত সকাল-সন্ধ্যা তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ আশপাশের সম্মুখভাগ পরিষ্কার করেন। অনেক সময় তিনি কাদা দিয়ে বারান্দা লেপন করেন। নিষেধ করলেও মানেন না। আমরা তাকে সাধ্যমতো খাবার ও পোশাক দিই। দেখভাল করি।

মতিয়ার রহমান মহুরী বলেন, বাজারের কমবেশি সবাই তাকে খাবার ও পোশাক দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু সবার কাছ থেকে তা নেন না আমেনা। বাজারের নির্ধারিত ২-১টি হোটেল থেকে খাবার খান তিনি। ওই হোটেল মালিকরাও তাকে খাবার দিতে পারলে খুশি হন। দিন শেষে পছন্দমতো যে কোনো ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের বারান্দায় রাত কাটান আমেনা।

আমেনার সুখে-দুঃখে সঙ্গ দেয় একটি কুকুর। যেন সে-ই তার আপনজন। মাঝে-মধ্যে আমেনাও ওই কুকুরের সঙ্গে কথা বলেন। গল্প করেন। রাতে ঘুমান একই বিছানায়। আমেনা অন্যের কাছ থেকে সংগ্রহ করা খাবার কুকুরটিকে খাওয়ান। মানবিক এই আমেনার কাছ থেকে হয়তো সমাজের অনেক কিছু শেখার আছে-এমন মন্তব্য সচেতন মহলের।