পেঁয়াজে আগ্রহ কৃষকের

ঢাকা, রবিবার, ২৬ জুন ২০২২ | ১২ আষাঢ় ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

পেঁয়াজে আগ্রহ কৃষকের

দিনাজপুর প্রতিনিধি
🕐 ৫:১৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

পেঁয়াজে আগ্রহ কৃষকের

দিনাজপুরে চলতি মৌসুমে পেঁয়াজের মূল্য পাওয়ায়, চাষিরা পেঁয়াজ চাষে আগ্রহ বৃদ্ধি পেয়েছে। চাষিরা এখন অন্য ফসলের পাশাপাশি পেঁয়াজ চাষের প্রতি গুরুত্ব দিচ্ছেন। বর্তমান পেঁয়াজের গাছসহ বাজারে কেজি প্রতি ৬০/৭০ টাকা ধরে বিক্রি করায় চাষীরা পেঁয়াজের চাষের প্রতি ঝুঁকে পড়েছে।

বর্তমানে বাজারে কাঁচা পেঁয়াজ বিক্রি করে চাষীরা অধিক পরিমাণে লাভবান হচ্ছেন। পেঁয়াজ চাষীরা বলছেন, পেঁয়াজ আগামী ৫৫/৬০ দিনে মধ্যে ঘরে চলে আসবে। দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বর্তমানে পেঁয়াজকে অধিক পরিমাণে গুরুত্ব দেওয়ার কারণে চাষীরা দল বেঁধে পেঁয়াজের জমিতে যত্ম করছে। আগাছা পরিস্কারসহ নিড়ানীকে বেশি গুরুত্ব প্রদান করছেন।

পেঁয়াজের জমিতে খুব বেশি রাসায়নিক সারের প্রয়োজন হয় না। জৈব সার আর অল্প পরিমাণে রাসায়নিক সার প্রয়োগ করলেই পেঁয়াজকে বাজারজাত করতে পারছেন চাষীরা।

স্বল্প সময়ের মধ্যে পেঁয়াজ ঘরে তুলতে পারায় কৃষকেরা অধিক লাভবান হচ্ছেন। তাই চাষীরা স্বল্প সময়ে অধিক লাভজনক হওয়ায় পেঁয়াজের পরিচর্চা করছেন। পেঁয়াজের অধিক চাহিদা থাকায় চাষীরা জমিতে পেঁয়াজ গাছসহ বিক্রি করতে পারছে। চাষীরা দল বেঁধে ক্ষেতের আগাছা পরিস্কার করার করার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। দিনাজপুর জেলায় প্রায় ১৩টি উপজেলায় পেঁয়াজ চাষ হচ্ছে। তবে দিনাজপুর সদর, চিরিরবন্দর খানসামা, বিরামপুর, নবাবগঞ্জ ও হাকিমপুরে পেঁয়াজ চাষ বেশি হয়।

দিনাজপুর সন্দরবন ইউনিয়নের পেঁয়াজ চাষী অশ্বিনী কুমার রায় বলেন, আগাম জাতের পেঁয়াজ চাষ করেছি। এখন পেঁয়াজের গাছসহ জমি থেকে বিক্রি করতে পারছি। বর্তমানে জমি থেকে গাছসহ পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬৫/৭০ টাকা কেজি দরে। গত বছর এই আগাম জাতের পেঁয়াজ বিক্রি করে তেমন লাভ না হলেও এ বছর পেঁয়াজের দাম বেশি হওয়ায় গাছসহ পেঁয়াজ বিক্রি করে লাভবান হচ্ছি।

দিনাজপুর সদর সুন্দরবন ইউনিয়নের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মতিন বলেন, সঠিকভাবে পরিচর্চা আর কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের পরামর্শে পেঁয়াজ চাষের পরিধি দিনাজপুরে বৃদ্ধি পাচ্ছে। হয়ত গাছ পেঁয়াজ শেষ হওয়ার সাথে চাষীরা বীজতলা পেঁয়াজ জমিতে রোপন করতে শুরু করবে।

দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ তৌহিদুল ইকবাল বলেন, দিনাজপুরে এ বছর ২ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে আগাম জাতের পেঁয়াজ অথ্যাৎ পেঁয়াজ থেকে পেঁয়াজ আবাদ করা হয়েছে ৪ শত হেক্টর জমিতে। এ বছর পেঁয়াজের দাম বেশি থাকায় চাষীরা পেঁয়াজ চাষে অনেক বেশি আগ্রহী হয়ে উঠেছে।

 
Electronic Paper