সাঘাটার ২৫ সড়কে বন্যার ক্ষত

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬

সাঘাটার ২৫ সড়কে বন্যার ক্ষত

সাঘাটা (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি ৫:৪৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

print
সাঘাটার ২৫ সড়কে বন্যার ক্ষত

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কাঁচা-পাকা প্রায় ২৫টি সড়ক ভেঙে-চুরে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাব আর গেল বন্যায় ভাঙা-চুরা রাস্তাগুলোর অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে। এতে উপজেলার অন্তত আটটি ইউনয়নের মানুষ যোগাযোগের ক্ষেত্রে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ায় ও সাম্প্রতিক বন্যায় সাঘাটা উপজেলার পদুমশহর, বোনারপাড়া, কচুয়া, কামালেরপাড়া, জুমারবাড়ী, ভরতখালী, সাঘাটা, ঘুড়িদহ, মুক্তিনগর ইউয়িনের গ্রামীণ জনগুরুত্বপূর্ণ কাঁচা-পাকা ছোট ও বড় প্রায় ২৫টি সড়ক ভেঙে-চুরে গেছে। এরমধ্যে সাঘাটা-জুমারবাড়ী পাকা সড়কের ৪ কিলোমিটার, বোনারপাড়া-ভরতখালী সড়কের ৩ কিলোমিটার, বোনারপাড়া-এলাসেরঘাট সড়কের ২ কিলোমিটার, জুমারবাড়ী-সোনাতলা সড়কের ২ কিলোমিটার, বোনারপাড়া-ভরতখালী সড়কের ৩ কিলোমিটার, কলেজমোড়-ভুতমারা সড়কের ২ কিলোমিটারসহ বোনারপাড়া, পদুমশহর, ভরতখালী, কচুয়া, সাঘাটা ও হলদিয়া ইউনিয়নে প্রায় ১৫টি কাঁচা-পাকা সড়কের বিভিন্ন স্থানে ভেঙে গেছে। বিগত বন্যার পানির তোরে ভেসে গেছে এসব এলাকার ব্রিজ-কালভার্ট। পাকা সড়কগুলোর পাশের প্যাকিং এর ইট, খোয়া ও মাটিসহ রাস্তা ধসে গেছে। এতে কমে গেছে প্রসস্ততা। আবার এসব সড়কের কোথাও কোথাও মাঝ খানের পাথরসহ খোয়া উঠে বড় বড় খানা-খন্দের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় একটি বেসরকারি শিশু বিদ্যালয়ের পরিচালক মো. সেলিম মোল্যা বলেন, তার স্কুলে প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী আছে। কিন্তু সড়কের এমন বেহাল দশার কারণে চলাচল করতে সমস্যা হওয়ায় এদের বেশিরভাগই স্কুলে আসতে পারে না। সড়কগুলো সংস্কারের জোর দাবি জানান তিনি।

জুমারবাড়ী এলাকার বাসিন্দা গোলাম রাব্বানী জানান, সড়কের অবস্থা বেশী খারাপ হওয়ার দরুণ রাস্তায় যানবাহন চলাচলে কষ্ট হচ্ছে। তিনটি ইউনিয়নের মানুষের চলাচলের একমাত্র সাঘাটা-জুমারবাড়ী সড়কটির অন্তত ৫০টি স্থানে ভেঙে-চুরে গর্ত হয়েছে। দুপাশে ধসে গেছে অসংখ্য স্থানে। ১০ মিনিটের সড়কে চলাচল করতে আধাঘণ্টা সময় লাগছে। বোনারপাড়া বাজারের মাষ্টারপাড়া সড়কের তিনমাথায় বড় গর্ত হওয়ায় বৃষ্টি হলেই প্রায় ৩০০ ফুট স্থানে ২০ দিনের বেশি সময় পানি আটকে থাকে।

উপজেলা প্রকৌশলী ছাবিউল ইসলাম জানান, ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা ও ব্রিজ-কালভার্ট মেরামতের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।