ঋণের ভারে কৃষকের আত্মহত্যা

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১ আশ্বিন ১৪২৬

ঋণের ভারে কৃষকের আত্মহত্যা

মাফি মহিউদ্দিন, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) ১০:৪৯ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯

print
ঋণের ভারে কৃষকের আত্মহত্যা

ঋণের বোঝা সইতে না পেরে মানিক হাজরা (৪৮) নামে এক কৃষক গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। গতকাল বুধবার সকালে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলি ইউনিয়নের দক্ষিণ বাহাগিলি কাচারিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আত্মহত্যাকারী কৃষক এ গ্রামের গঙ্গাহারী হাজরার ছেলে।

বাহাগিলি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান শাহ দুলু জানান, দক্ষিণ বাহাগিলি কাচারিপাড়া গ্রামের গঙ্গাহারী হাজরার ছেলে মানিক হাজরা একজন ক্ষুদ্র কৃষক।

তিনি নিজের কিছু জমি এবং এলাকার মানুষের জমি বর্গা নিয়ে সেই জমিতে চাষাবাদের পাশাপাশি মানুষের জমিতে কাজ করে জীবনযাপন করে আসছিলেন। তার এক ছেলে এক মেয়ে রয়েছেন। তার ছেলে মিথুন চন্দ্র হাজরা ভ্যানচালক।

ভ্যান চালিয়ে যা আয় করে রোজকার করে বাবাকে সহযোগিতা করে আসছে। দুই বছর আগে মানিক হাজরা এলাকার কয়েকজন মানুষের কাছে চড়া সুদে টাকা ধার নেন। সেই টাকা সুদে-আসলে দ্বিগুণ হওয়ায় টাকা পরিশোধ করার চিন্তায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন তিনি। একপর্যায়ে সবার অজান্তে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এম হারুন অর রশিদ বলেন, সকাল ১১টার দিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে কড়াইগাছের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এরপর পাঠানো হয় নীলফামারী হাসপাতাল মর্গে।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে আমরা জেনেছি মানিক হাজরা ঋণের বোঝা সইতে না পেরে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।