সীমন্তে বাংলাদেশি নিহতের ঘটনায় পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

সীমন্তে বাংলাদেশি নিহতের ঘটনায় পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত

পাটগ্রাম (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি ৫:৩২ অপরাহ্ণ, জুলাই ০৭, ২০১৯

print
সীমন্তে বাংলাদেশি নিহতের ঘটনায় পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়ন সীমন্তে গরু পারাপারের সময় বিএসএফের ছোঁড়া গুলিতে আহত বাংলাদেশি যুবক এরাশাদুল হক (৩৫) নিহত ও অপর দুই জন আহত হয়েছে। নিহত যুবকের বাড়ি ওই ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে তার বাবার নাম মৃত আহসানুল হক।

এ ঘটনায় বোরবার বিকেলে বুড়িমারী জিরোপয়েন্ট চেকপোস্ট এলাকায় বিজিবি- বিএসএফ পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

সীমান্ত সূত্র ও এলাকাবাসি জানিয়েছে, সীমান্তের ৮৪৩ নম্বর মেইন পিলারের ২ নম্বর সাব পিলারের নিকট দিয়ে রোববার(০৭ জুলাই) রাত দুইটা ৩০ মিনিট থেকে ৩ টার সময় এরশাদুল হকসহ ৭/৮ জনের একটি দল ভারতীয় গরু ব্যবসায়ীদের সহযোগীতায় গরু পারাপার করতে থাকে। গরু পারাপারকারীদেরকে লক্ষ্য করে ভারতীয় ১৪৮ রানীনগর বিএসএফ ব্যাটালিয়নের চ্যাংরাবান্ধা ক্যাম্পের টহলদলের সদস্যরা গুলি ছুঁড়ে।

এ সময় এরশাদুল হকের সামনদিকে গলার নিচে গুলি বিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। গুরুতর আহতাবস্থায় অন্যান্যারা উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাটগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে মারা যায় তিন সন্তানের জনক এরশাদুল। আহতদের নাম তাৎক্ষনিকভাবে জানা যায়নি।


পাটগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনসুর আলী সরকার বলেন, ‘সীমান্তে অবৈধভাবে যাওয়ার জন্য এরশাদুল গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়। নিহতের বড় ভাই সাইদুজ্জামান থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে। নিহতের লাশের সুরতহাল রিপোর্ট ও ময়না তদন্ত প্রক্রিয়াধীন আছে।’

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ রংপুর-৬১ বিজিবি’র অধীন বুড়িমারী কোম্পানির নায়েক সুবেদার মিজানুর রহমান বলেন, ‘বাংলাদেশি নিহতের ঘটনায় বিএসএফকে পতাকা বৈঠকের জন্য আহবান করা হয়। বুড়িমারী জিরোপয়েন্ট চেকপোস্ট এলাকায় বিকেলে ঘন্টাব্যাপী বিএসএফের সাথে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে গুলিতে বাংলাদেশি হত্যার ঘটনা সম্পর্কে কিছু বলতে পারে না বলে জানায়। তারা (বিএসএফ) বলে বাংলাদেশি লোককে নয় কোনো চোরাকারবারি বা দুস্কৃতি কারীকে গুলি করা হয়।