ঈশ্বরদীর উন্নয়নে স্থবিরতা

ঢাকা, রবিবার, ৩১ মে ২০২০ | ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ঈশ্বরদীর উন্নয়নে স্থবিরতা

শমিত জামান, (পাবনা) ঈশ্বরদী ৩:০৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০

print
ঈশ্বরদীর উন্নয়নে স্থবিরতা

পাবনার গুরুত্বপূর্ণ জনপদ ও প্রথম শ্রেণির পৌরশহর ঈশ্বরদীর উন্নয়ন গত প্রায় দশ বছর অজ্ঞাত কারণে স্থবির হয়ে আছে। ফলে শহরের প্রধান সড়ক ও আবাসিক এলাকার রাস্তাগুলো চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি ড্রেনগুলোর অবস্থাও অত্যন্ত খারাপ। কাক্সিক্ষত যে উন্নয়ন পৌরবাসী আশা করেছিল তা গত দশ বছরেও দৃশ্যমান হয়নি। বর্তমান পৌর পরিষদের কাছে মানুষের প্রত্যাশা ছিল বেশি। কারণ আওয়ামী লীগ সরকারের টানা এগার বছরের শাসনামলে দেশের অনেক জায়গায় দৃশ্যমান অবকাঠামোগত উন্নয়ন হয়েছে। অথচ সেই দিক থেকে ঈশ্বরদী পিছিয়ে আছে অনেক।

সাবেক পৌর মেয়র মকলেছুর রহমান বাবলুর নেতৃত্বাধীন পাঁচ বছরও পেরিয়ে গেছে হেলাফেলায়। বড় কোন প্রকল্পের বাস্তবায়ন ছিল না তখনও।

বর্তমান পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু জানান, ১৫ কোটি ৩০ লাখ টাকার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এগুলো চূড়ান্ত হতে ৫-৬ মাস সময় লাগবে। এরপরই কাজ শুরু হবে।

এদিকে বর্তমান পৌর মেয়রের মেয়াদকাল চার বছর পেরিয়ে গেছে। তিনি পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি। সুতরাং দেনদরবার করে উন্নয়নের জন্য অর্থ বরাদ্দ করানো তার জন্য খুব একটা কঠিন হওয়ার কথা নয়। বর্ষিয়ান নেতা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুর রহমান শরীফ পাঁচ বছর মন্ত্রী ছিলেন। তার সহযোগিতায় কিছু কাজ করা যেত। সব মিলিয়ে পৌরবাসীর জিজ্ঞাসা কেন পৌর এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে নেতৃত্বের সমন্বয় হলো না। কেন দৃশ্যমান হলো না পৌর নির্বাচনের সময় দেওয়া প্রতিশ্রুতিগুলোর বাস্তবায়ন।

শহরের আবাসিক এলাকায় এক শ্রেণির মানুষ রাস্তার পাশেই বাড়ির ময়লা ফেলে পরিবেশ নষ্ট করেন। এসব ব্যাপারে প্রথমে সতর্কীকরণ এবং পরবর্তীতে পৌর আইন প্রয়োগ করা উচিত বলে মনে করেন সচেতন মানুষজন। তারা মনে করেন, কিছু অসচেতন মানুষ আইনের প্রয়োগ ছাড়া সঠিক কাজে মনযোগী হয়না। ফলে বৃহত্তর স্বার্থে এসব ব্যাপারে পৌরসভার সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় প্রধানদের ভূমিকা রাখতে হবে।

উন্নয়নমূলক কাজে কোন বাধা থাকলে পৌরসভার মেয়র মিডিয়ার সঙ্গে বসে খোলামেলা আলোচনা করতে পারতেন। সেই ধরনের কোন উদ্যোগ চোখে পড়েনি বিগত চার বছর।

তবে পৌর এলাকার উন্নয়ন থমকে থাকলেও দলীয় অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের ব্যাপারগুলো ভালভাবেই মানুষ প্রত্যক্ষ করেছে। সাধারণ মানুষ শুধু উন্নয়নটুকু দৃশ্যমান দেখতে চায়। সেই বিবেচনায় বর্তমান পৌরসভা কতটুকু সফল হলো সেটাই মূল্যায়নের বিষয়।