অসহায়দের ভরসা নারী সহায়তা কেন্দ্র

ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

অসহায়দের ভরসা নারী সহায়তা কেন্দ্র

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি ২:০৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২১, ২০১৯

print
অসহায়দের ভরসা নারী সহায়তা কেন্দ্র

গুরুদাসপুরের ইউএনও অফিসে কর্মকর্তা-কর্মচারী থেকে শুরু করে সবই ছিল। ছিল না শুধু সেবা নিতে আসা সাধারণ মানুষের বসার কোন জায়গা। বিশেষ করে নারীদের। অনেকের ভিড়ে সেবা নিতে আসা অনেক মানুষকে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে হতো অফিসের বাহিরে। তবে এসময় সবচেয়ে বেশি বিড়ম্বনায় পড়তে হতো দুগ্ধপোষ্য শিশু নিয়ে আসা মায়েদের এবং গ্রামের হতদরিদ্র অসহায় ছিন্নমুল নারীদের। তারপরও ছিল না কোন হেল্প ডেস্ক। ছিল না নারীদের সেবা দেওয়ার জন্য কোন নারী উদ্যোক্তা।

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. তমাল হোসেনের উদ্যোগে চালু করা হলো ‘নারী সহায়তা কেন্দ্র’। উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় এটি বাস্তবায়ন হয়েছে।

ইউএনও অফিসে উপজেলা সদর থেকে শুরু করে পল্লী গ্রামের সাধারণ মানুষ ও নারীরা তাদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে এখানে আসে। ছোট ছোট সমস্যা মৌখিকভাবে বললেও বড় বড় সমস্যাগুলো আবেদন করে করতে হয় তাদের। সেই আবেদন এখন থেকে বিনামূল্যে করা হবে। নারী সহায়তা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে একজন নারী উদ্যোক্তাকে। সেই উদ্যোক্তা বিনামূল্যে একজন অসহায় নারীকে তার সমস্যার বিষয়ে ইউএনও বরাবর আবেদন করিয়ে দিবে। আবেদনের সাথে দরকার হবে রেভিনিউ স্ট্যাম্প। কিন্তু সেই সেবাটিও বিনামূল্যে দেওয়া হবে তাদের। নারী সহায়তা কেন্দ্রে থাকবে একটি রেজিস্ট্রার। যে রেজিস্টার প্রত্যেকদিন ইউএনও নিজেই দেখবেন এবং রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ প্রত্যেকটি সমস্যার সমাধানও তিনিই দিবেন। নারী সহায়তা কেন্দ্রের পাশেই রয়েছে হেল্প ডেস্ক কক্ষ সেই কক্ষে গিয়ে উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা সাধারণ মানুষ তাদের সমস্যার কথা বলতে পারবে।

ইউএনও তমাল হোসেন বলেন, গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে আমার যোগদানের প্রায় ৫ মাস। যোগদানের পর থেকেই দেখছি, অনেক মহিলা অফিসের বাহিরে দাঁড়িয়ে থাকে। কখনও কখনও আমার অফিসে বেশি ভিড় থাকার কারণে অনেক মহিলা বাড়িতে চলে যায়। এই অফিসে সেবা নিতে আসা প্রায় সকলেই গ্রাম অঞ্চলের নারী ও সাধারণ মানুষ। সাধারণ মানুষ ও অসহায় নারীদের জন্যই আমার এই উদ্যোগ।

উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন জানান, ইউএনও মহোদয়ের এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই।