বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণ থমকে গেল

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯ | ২৮ কার্তিক ১৪২৬

বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণ থমকে গেল

নিয়োগ হয়নি পরামর্শক

বগুড়া প্রতিনিধি ৫:১৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৯, ২০১৯

print
বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণ থমকে গেল

পরামর্শক নিয়োগ না হওয়ায় বহুল কাঙ্খিত বগুড়া-সিরাজগঞ্জ ডুয়েল গেজ রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের কোনও অগ্রগতি হচ্ছে না। একবছর আগে এই প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর প্রকল্পটি জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) গভায় অনুমোদন হয়। কিন্তু পরামর্শক নিয়োগ না হওয়ায় জরিপ ও ভূমি অধিগ্রহণসহ অন্যান্য কার্যক্রম শুরু করা যাচ্ছে না।

বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী মাসুদুর রহমান জানান, বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পটি গত ২০১৮ গালের ৩০ অক্টোবর একনেকের গভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ভারতের ঋণে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হওয়ার কথা রয়েছে। শর্তানুসারে তারাই পরামর্শক নিয়োগ দেবে। আগামী ৪-৫ মাসের মধ্যে পরামর্শক নিয়োগ হবে।

এরপর প্রকল্প পরিচালক নিয়োগ, গার্ভে, জমি অধিগ্রহণসহ অন্যান্য কাজ আছে। গব প্রক্রিয়া শেষে রেলপথের মূল কাজ শুরু করতে আরও অন্তত দেড় বছর লাগতে পারে। অর্থাৎ ২০২১ গালের মাঝামাঝি বহুল কাঙ্খিত বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

অভিযোগ রয়েছে, বগুড়া থেকে নির্বাচিত তৎকালীন গংসদ গদস্য ও বিএনপি দলীয় এক প্রভাবশালী পরিবহন ব্যবসায়ীর বিরোধিতায় শেষ পর্যন্ত প্রকল্পটি ভেস্তে যায়। ২০১১ গালে সিরাজগঞ্জে এক জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ তৈরির প্রতিশ্রুতি দেন। এতে এ অঞ্চলের মানুষ আশায় বুক বাঁধলেও পরে রেলপথ নির্মাণ তৎপরতা অজ্ঞাত কারণে থেমে যায়।

২০১৫ গালের ১২ নভেম্বর বগুড়া শহরের আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে এক জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবারও রেলপথ নির্মাণের আশ্বাস দেন। তবে অর্থের গংস্থান না হওয়ায় প্রকল্পটির কার্যক্রম থমকে যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ গালের ৪ অক্টোবর ঢাকায় ভারতের গঙ্গে যোগাযোগ অবকাঠামো ও বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় তৃতীয় ক্রেডিট লাইনে বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণে ঋণ দিতে দেশটি গম্মত হয়। এর পরপরই প্রকল্পটি বাস্তবায়নে প্রজেক্ট প্রোফাইল প্রণয়ন, নকশা তৈরি, স্টেশনের গংখ্যা নির্ধারণ এবং জমির দাম নির্ধারণের কাজ করা হয়।