ভৌতিক বিলে ভোগান্তি

ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ভৌতিক বিলে ভোগান্তি

নাটোর প্রতিনিধি ৬:১৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৮, ২০১৯

print
ভৌতিক বিলে ভোগান্তি

নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর বিরুদ্ধে অতিরিক্ত বিল আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। এতে বেকায়দায় পড়ছেন গ্রাহকরা। তাজপুর ইউনিয়নের রাখালগাছা বাজারের ওয়েল্ডিং ওয়ার্কশপের দোকান মালিক শাহাদত হোসেনের অভিযোগ, নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর সিংড়া জোনাল অফিস থেকে ইস্যু করা তার দোকানের সেপ্টেম্বর মাসের বিদ্যুৎ বিল এসেছে ৪৫ হাজার ৬০৬ টাকা। যা আগস্ট মাসে ছিল ১৭১৯ টাকা। জুলাই মাসে এসেছিল ১২৮৬ টাকা। শাহাদত হোসেনের ছেলে নাজমুল হোসেনের দাবি, ৪৫ হাজার টাকার বিদ্যুৎ বিল কাল্পনিক ছাড়া কিছু নয়।

নাজমুল হোসেন জানান, জুলাই মাসে মোট ১১৫ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহার হয়েছে। মিটার ভাড়া ১০ টাকা ও ভ্যাট ৬২ টাকাসহ মোট নিট বিল করা হয়েছে ১২৮৬ টাকা। আগস্ট মাসে ১৫৫ ইউনিটের বিপরীতে ৮২ টাকা ভ্যাট ও অন্যান্যসহ মোট বিল করা হয়েছে ১৭১৯ টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে ৪২১৩ ইউনিটের বিপরীতে মিটার ভাড়া ও ভ্যাট ২১৭২ টাকা ধরে মোট বিল করা হয়েছে ৪৫ হাজার ৬০৬ টাকা।

নাটোর সদর উপজেলার দিঘাপতিয়া এলাকার রাজা শেখের অভিযোগ, তার বাড়ির মিটারে জুন মাসে বিল ছিল ১৫৫ টাকা, জুলাই মাসে ১১৫ টাকা অথচ আগস্ট মাসে কোন বাড়তি বিদ্যুৎ ব্যবহার না হলেও বিল এসেছে ২৫১ টাকা।

একই এলাকার সেলিম রেজা জানান, তার জুন মাসের বিল ছিল ২০০ টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে এসেছে ১৬০০ টাকা।

নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ সিংড়া জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) রেজাউল করিম বলেন, ‘বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের জিএম আব্দুস সোবহান জানান, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।’