চার মাসে ৪০ বাল্যবিয়ে বন্ধ

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

চার মাসে ৪০ বাল্যবিয়ে বন্ধ

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি ৭:২১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০১৯

print
চার মাসে ৪০ বাল্যবিয়ে বন্ধ

বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং প্রতিরোধে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনন্য উদ্যোগ নিয়েছেন। উপজেলার জনগুরুত্বপূর্ন স্থান নয়াবাজারেই চোখে পড়বে বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং প্রতিরোধ করন একটি বিলবোর্ড। উপজেলার সব গুরুত্বপূর্ণস্থানে সম্প্রতি বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং প্রতিরোধে ইউএনও তমাল হোসেনের পরিকল্পনা অনুযায়ী বিল বোর্ড স্থাপন করা হয়েছে।

বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং কি এবং এর ফলে কি শাস্তির বিধান আছে তা উল্লেখ রয়েছে এই বিল বোর্ডে। এবং গত চারমাসে প্রায় ৪০ টি বাল্য বিয়ে বন্ধ করেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, কখনও বর যাত্রী, কখনও কনে যাত্রী, কখনও আবার শিক্ষার্থী এবং কখনও সাধারণ মানুষ সেজে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে গত চারমাসে প্রায় ৪০ টি বাল্যবিয়ে বন্ধ করেছেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান বলেন, ইউএনও স্যারের অনন্য উদ্যোগে তিনি সারথী হিসেবে আছেন। বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং প্রতিহত করতে ইউএনও স্যারের নির্দেশে তৎখনাত ঘটনাস্থলে গিয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করেন তিনি।

ইউএনও তমাল হোসেন বলেন, উপজেলার সব গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বাল্যবিয়ে এবং ইভটিজিং প্রতিরোধ বিষয়ক বিলবোর্ড স্থাপন করা হয়েছে। বাল্যবিয়ে একটি অভিশাপ। এর ফলে একজন মেয়ের শিক্ষা যেমন বন্ধ হয়ে যায়, পাশাপাশি সুন্দর ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়ে যায়। মেয়েরা যেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নির্বিঘ্নে যেতে পারে সেই বিষয়টি সর্বাধিক গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে।