গাছ উজাড় করে সড়ক সংস্কার

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯ | ৮ কার্তিক ১৪২৬

গাছ উজাড় করে সড়ক সংস্কার

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ৬:০২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯

print
গাছ উজাড় করে সড়ক সংস্কার

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ-রানীরহাট সড়কের গাছ উজাড় করে ১৭ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার করা হচ্ছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান বন বিভাগ ও জেলা পরিষদের অনুমতি না নিয়েই কয়েক হাজার বিভিন্ন প্রজাতির গাছ উপড়ে ফেলে। যার আনুমানিক মূল্য ১৫ লাখ টাকা।

জানা গেছে, তাড়াশ উপজেলা সদরের পশ্চিম ওয়াবদা বাঁধ থেকে রানীরহাট পর্যন্ত ১৭ কিলোমিটার সড়ক এ বছর সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) প্রশস্ত, মজবুতিকরণ ও মেরামতের উদ্যোগ নেয়।

এ লক্ষ্যে জেলা সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় রাজশাহী অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীর কর্যালয় থেকে দরপত্র আহ্বান করা হলে ৩০ কোটি ৯৮ লাখ টাকা ব্যয়ে কার্যাদেশ পায় মেসার্স ময়েন উদ্দিন (বাঁশি) লিমিটেড। সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, কার্যাদেশ পাওয়ার পর গত ২৫ মে রাস্তাটি উদ্বোধনের পর আনুষ্ঠানিকভাবে কাজ শুরু করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

দরপত্র অনুযায়ী রাস্তাটির উভয়পাশে তিন ফুট করে ছয় ফুট প্রশস্তকরণের কথা থাকায়, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এক্সেভেটর (খনন যন্ত্র) দিয়ে কাজ শুরু করে। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় জেলা পরিষদের লাগানো হাজার হাজার বিভিন্ন প্রজাতির গাছ।

এ সময় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান বন বিভাগ ও জেলা পরিষদের অনুমতি না নিয়েই কয়েক হাজার বিভিন্ন প্রজাতির গাছ উপড়ে ফেলে।

এ প্রসঙ্গে সিরাজগঞ্জ জেলা সহকারী বন কর্মকর্তা ইব্রাহীম খলিল বলেন, এভাবে গাছ কাটার কোনো নিয়ম নেই। নিয়ম অনুযায়ী বন বিভাগে আবেদন করার পর, বন বিভাগ মূল্য নির্ধারণ করে গাছ কাটার অনুমতি দিলেই তবে সরকারি বা বেসরকারি কোনো প্রতিষ্ঠান গাছ কাটতে পারবে। কিন্তু এ ক্ষেত্রে সড়ক ও জনপথ বিভাগ বা জেলা পরিষদ বন বিভাগের কোনো অনুমতি নেয়নি। রাস্তাটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের হলেও সামাজিক বনায়ন করেছে সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদ।

সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম প্রামাণিক বলেন, আমরা জেলা পরিষদকে চিঠি দিয়েছি প্রকল্প এলাকার গাছ কাটার জন্য।