বিদ্যালয়ের জায়গায় পশুর হাট

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬

বিদ্যালয়ের জায়গায় পশুর হাট

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ৯:১৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৯

print
বিদ্যালয়ের জায়গায় পশুর হাট

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বড়হর ইউনিয়নের পূর্বদেলুয়া নামক স্থানে প্রায় দেড়শ’ বছরের পুরনো হাট। এখন পুরনো হাটটি ছেড়ে অন্য জায়গায় হাট বসানো হয়েছে। যে হাটটির কোনো নিজস্ব জায়গায় নেই। প্রায় নয় বছর ধরে নাম ঠিক রেখে অন্য জায়গায় নিয়মিত পশুর হাট বসানো হচ্ছে। স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ হাট বসছে সপ্তাহে দু’দিন। অপরদিকে, হাটের নিজস্ব জায়গার বেশির ভাগ অংশ বেদখলে হয়ে গেছে। সেখানে চলে ধান-চাতালের কারবার।

উল্লাপাড়া উপজেলার বড়হর ইউনিয়নের পূর্বদেলুয়া নদী পাড়ে হাটটির নিজস্ব জায়গা রয়েছে। বড়হর ইউনিয়ন ভূমি অফিস সূত্রে জানা গেছে, পূর্বদেলুয়া হাটের নিজস্ব জায়গার পরিমাণ ৫৫ শতক। উপজেলার সবচেয়ে পুরনো ক’টি হাটের একটি হলো পূর্বদেলুয়া হাট। প্রবীণ ব্যক্তিদের বক্তব্যে জানা যায়, এ হাটটি প্রায় দেড়শ’ বছরের।

এক সময় এলাকার নামকরা হাট ছিল। বিভিন্ন পণ্যের জমজমাট কেনাবেচা ছিল। সপ্তাহের দু’দিন শনি ও মঙ্গলবার নিজস্ব জায়গায় হাটটি বসত। আগে ইউনিয়ন বোর্ড থেকে এ হাটের ইজারা ডাক হতো বলে জানা যায়। এখন অনেক বছর হলো স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন থেকে সরকারিভাবে এ হাটের বার্ষিক ইজারা ডাক হয়। ইউএনও অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ বছর ইজারা মূল্য হয়েছে ৭৪ হাজার ৮২০ টাকা। এবারকার ইজারাদারের নাম শামছুল ইসলাম।

জানা গেছে, গত নয় বছর ধরে পূর্বদেলুয়া হাট তার নিজস্ব জায়গায় আর বসানো হচ্ছে না। নিজস্ব জায়গা থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে আরেক জায়গায় পূর্বদেলুয়া হাট নামেই নিয়মিত বসানো হয়। বর্তমানে হাট বসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জায়গায়, যার কোনো সরকারি অনুমোদন নেই। বিগত ২০১১ সাল থেকে নতুন এ জায়গায় হাটটি বসে। সে সময় হাটের ইজারা নিয়ে ছিলেন মো. শরিফুল ইসলাম। নিজস্ব জায়গা ছেড়ে এ জায়গায় হাট বসানোর পেছনে স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিদের উদ্যোগে এখানে হাট বসানো হয় বলে জানা গেছে। স্থানীয়রা জানান, সরকারের অনুমতি ছাড়াই হাটের মূল জায়গা ছেড়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বসানোর ফলে পূর্বদেলুয়াবাসী ক্ষুব্ধ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফুজ্জামান জানান, নিজস্ব জায়গা ছেড়ে অন্য জায়গায় পূর্বদেলুয়ায় হাট বসানোর বিষয়টি তার জানা নেই। তিনি অবশ্যই বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে জানান।