বিএসএফের ছররা গুলিতে আহত ১০ বাংলাদেশি

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১ আশ্বিন ১৪২৬

বিএসএফের ছররা গুলিতে আহত ১০ বাংলাদেশি

রাজশাহী প্রতিনিধি ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৩, ২০১৯

print
বিএসএফের ছররা গুলিতে আহত ১০ বাংলাদেশি

রাজশাহী সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) ছররা গুলিতে ১০ বাংলাদেশি কৃষক আহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত কৃষকদের দাবি, তারা জমিতে কলাই বপন করছিলেন। এ সময় ট্রাকে বিএসএফের সদস্যরা এসে ঘটনাস্থলে নেমেই তাদের ওপর গুলি ছোড়ে। আহত কৃষকরা সবাই চরখিদিরপুরের বাসিন্দা। ঘটনাটি ঘটেছে পাশের চরখানপুর সীমান্তে। বিজিবি বলছে, শটগান থেকে গ্রামবাসীর ওপর রাবার বুলেট ছোড়া হয়েছে।

আহত কৃষকরা হলেন- রুমন (২৩), সুজন (২৩), সোহেল (২৮), দুলাল (৩৫), রবিউল (৩২), রুবেল (২৫), সম্রাট (২৫), জোটু (৪০), সুরুজ (১৯) ও সুমন (৩০)। চিকিৎসার জন্য তাদের রাজশাহী শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত কৃষকদের ভাষ্যমতে, সকালে তারা বাংলাদেশের সীমানার ভিতরেই জমিতে কাজ করছিলেন। তখন বিএসএফের সদস্যরা ট্রাকে এসে তাদের ওপর অতর্কিতে শটগানের গুলি ছোড়ে। কৃষক রুমনের পিঠে ১৭টি, ডান হাতে ১২টি, দুই পায়ে আরও অন্তত ১০টি বুলেট বিদ্ধ হওয়ার চিহ্ন পাওয়া গেছে। কৃষক সুজনের পায়ে ১৯টি বুলেট বিদ্ধ হয়েছে। সব ক্ষতস্থান থেকেই রক্ত ঝরতে দেখা গেছে। কৃষক রবিউলের গায়ে গুলি লেগেছে। তারপর তাকে ধরে বন্দুকের বাঁট দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয়েছে বলে কৃষকদের দাবি। আরেকজন কৃষকের পেটের এক পাশেই সাতটি বুলেট বিদ্ধ হয়েছে।

কৃষকরা জানান, বিএসএফের সদস্যরা বাংলাদেশের সীমানার ভিতরে এসে তাদের কাজ করার হাঁসুয়া ও কোদাল জব্দ করে নিয়ে যান। এ বিষয়ে বিজিবির রাজশাহীর ১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ জানান, শটগান থেকে ছোড়া রাবার বুলেটে কৃষকেরা আহত হয়েছেন। এ রকম আহত চারজনের ছবি তারা পেয়েছেন। তবে ১০ জন আহত হওয়ার বিষয়টি শুনেছেন।

অধিনায়ক বলেন, ঘটনার শোনার পরেই বিজিবি সদস্যরা গিয়ে বিএসএফকে ঘটনাস্থলেই পেয়েছেন। তাদের সঙ্গে পতাকা বৈঠক করে কথা বলেছেন। তারা গুলি ছোড়ার কথা স্বীকার করেছেন। বিএসএফের ভাষ্য, সকালে তিন-চারজন বাংলাদেশি কৃষক ঘাস কাটতে কাটতে বাংলাদেশের সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতে ঢুকে পড়েছিলেন। বিএসএফ তাদের চ্যালেঞ্জ করলে তারা বিএসএফের উদ্দেশে দা ছুড়ে মারেন। এরপর তারা গ্রামে পালিয়ে আসেন। পরে সংগঠিত হয়ে বিএসএফের ওপরে হামলা করতে যান।

আত্মরক্ষার জন্য গ্রামবাসীকে ছত্রভঙ্গ করার জন্য বিএসএফ রাবার বুলেট ছোড়ে। তারা গ্রামবাসীর ছয়টি হাঁসুয়া বিজিবিকে ফেরত দিয়েছেন। তারা বলেছেন, এ রকম ঘটনা আর হবে না। এ ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।