থামছে না যমুনার ভাঙন

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

থামছে না যমুনার ভাঙন

চৌহালী (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ৬:৫০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০১৯

print
থামছে না যমুনার ভাঙন

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলায় যমুনা ভাঙন অব্যাহত থাকায় খাষপুখুরিয়া, রেহাই পুখুরিয়া, মিটুয়ানি ও চরসলিমাবাদ (ভুতেরমোড়) এলাকার মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই। তাদের কান্নায় আকাশ ভারি হয়ে আসছে। ফলে প্রকৃতির সঙ্গে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে বেঁচে আছে চৌহালীর মানুষ।

জানা যায়, চলতি বর্ষায় যমুনার অব্যাহত ভাঙনে রেহাইপুখুরিয়া, নতুন পাড়া ও মিটুয়ানি তাঁতীপারা ধ্বংস্তুপে পরিণত হয়েছে। দুর্ভোগবাসিদের দাবি, ডাম্ভিংয়ের অভাবে বসতভিটে হারিয়ে রাস্তার ওপর খোলা আকাশের নীচে দিনাতীপাত করছি। সংসদ থেকে শুরু করে দিনমুজুর পর্যন্ত পরিদর্শন করলেও আমাদের করুনদৃশ্য ও তান্ডবনীলয় দেখেও কর্তৃক পক্ষের টনক নড়েনি।

উপজেলার দক্ষিনাঞ্চলে ভাঙছে নদী, বিলীন হচ্ছে-চিরচেনা বসতভিটা-ফসলি জমি কবরস্থান, রাস্তা, ব্রিজ, শিক্ষাঙ্গান, বাজার ও তাঁত শিল্প এলাকায়।

রেহাইপুখুরিয়া, নতুন পাড়ার মানুষের হা-হা-কার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এক সময়ের বিত্তশালীরা অসহায় হয়ে খুঁজছে মাথা গোঁজার ঠাঁই। ঘর, আসবারপত্র গরু-ছাগল, হাস মুরগি ও তাঁত শিল্পর যন্ত্রপাতি বিদ্বংস্ত এবং খোলা আকাশে। তাদের করুণ আর্তনাদে যমুনা পাড় যেন ভাড়ি হয়ে আসছে। দূরদূরান্ত থেকে বহু মানুষ প্রতিদিনই আসছে যমুনার নির্লজ্জ ভাঙনের তান্ডবনীলা দেখতে। যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধি বা কমলেও ভাঙছে নদী।

বাঘুটিয়ার ইউপি সদস্য মির্জা সেলিম, খাসপুখুরিয়া ইউপি সদস্য রবিউল ইসলাম বলেন, বর্ষা আসলেই যমুনার ভাঙন রুদ্ধরুপ ধারণ করায় আমাদের মধ্যে ঘুম হারাম ও আতঙ্ক কাজ করছে। বিশেষ করে খাষপুখুরিয়া রেহাই পুখুরিয়া মিটুয়ানি সড়ক, বহু তাঁত কারখানা, কয়েকশ ঘরবাড়ি, বাজার, স্কুল, মসজিদ, কবরস্থান, দোকান পাট চরম হুমকির মধ্যে পড়েছে। তাঁতীপাড়াসহ অনেক এলাকা দফায় দফায় নদীর পাড় পরিদর্শন করা হয়েছে অথচ রোধের কোন লক্ষন নেই।

ভাঙন কবলে পরে খোলা আকাশে মানবেতর জীবনযাপন করছে অনেকে। আবার ঝড়-বৃষ্টি ও প্রখর রোদ মাথায় নিয়ে অনেক পরিবার তাদের নিজ নিজ আত্মীয়-স্বজনদের পাশে গিয়ে আশ্রায় নিতে ঘরসহ মালামাল নৌকায় তুলছে এবং বহু কষ্টে খোলা আকাশে রান্না করছে যার বাস্তব চিত্র সরেজমিন। চিরচেনা বসতভিটা-ফসলী জমি ও প্রকৃতিক হারিয়ে পথের ফকির হতে বসেছে অনেকেই।

এদিকে, গত সোমবার সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ও চৌহালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক সরকার তাঁতী পাড়া ভুতেরমোড়সহ বিভিন্ন ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করে দুর্ভোগবাসিদের ভাঙন রোধে আশ্বাস্ত করেন।