চলছে উদ্ধারকাজ, রাজশাহীর সঙ্গে রেল চলাচল স্বাভাবিক বিকেলে

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

চলছে উদ্ধারকাজ, রাজশাহীর সঙ্গে রেল চলাচল স্বাভাবিক বিকেলে

রাজশাহী প্রতিনিধি ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০১৯

print
চলছে উদ্ধারকাজ, রাজশাহীর সঙ্গে রেল চলাচল স্বাভাবিক বিকেলে

বুধবার বিকালের দিকে ঈশ্বরদী থেকে একটি তেলবাহী ট্রেন সারদা স্টেশন থেকে দেড় কিলোমিটার পশ্চিমে পৌঁছালে ৮টি বগি লাইনচ্যুত হয়। এ ঘটনায় লাইনচ্যুত হওয়া তেলবাহী ওয়াগন উদ্ধার হয়নি ১৬ ঘণ্টাতেও। ফলে এখনও বন্ধ রয়েছে রাজশাহীর সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ। তবে বিকেল নাগাদ উদ্ধার কাজ শেষ হবে বলে জানানো হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় রাতেই ঢাকা থেকে রাজশাহী উদ্দেশে ছেড়ে আসা সিল্কসিটি এবং রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী ধূমকেতু ট্রেন দুটির যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া ঢাকা থেকে দুপুর সোয়া ১টার দিকে রাজশাহী অভিমুখে ছেড়ে আসা বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি আড়ানী স্টেশনে আটকা পড়ে। এতে করে যাত্রীদের পড়তে হয়েছে চরম বেকায়দায়।

বুধবার রাতে ঈশ্বরদী থেকে আসা উদ্ধারকারী ট্রেন অভিযান শুরু করলেও বৃষ্টি ও আলো স্বল্পতায় উদ্ধার কাজ থমকে যায়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে লাইনচ্যুত তিনটি ওয়াগন উদ্ধার হয়েছে। বিকেল নাগাদ উদ্ধার কাজ শেষ হবে বলে জানানো হয়েছে।

সারদা রেলস্টেশনের মাস্টার খায়রুল ইসলাম জানান, রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার সারদায় তেলবাহী ট্রেনের ৮টি বগি লাইনচ্যুতের ঘটনায় ঈশ্বরদী থেকে বুধবার রাত ১০টার দিকে রিলিফ ট্রেন এসে উদ্ধারকাজ শুরু করেছে। তবে উদ্ধারকাজে বাদ সেধেছে প্রচণ্ড বৃষ্টি। এতে উদ্ধারকাজ করতে হিমশিম খাচ্ছেন উদ্ধারকারীরা।

এ ঘটনার পর থেকে রাজশাহী থেকে বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী সব ধরনের ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। এ ছাড়া রাজশাহীর সঙ্গে সারা দেশের সব ধরনের ট্রেনের যাত্রা বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ বলেও জানান তিনি।

এদিকে এ ঘটনায় রাতেই পশ্চিমাঞ্চল রেলের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুর রশিদকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়াও ঘটনা তদন্তে বিভাগীয় ট্রান্সফোর্স অফিসার আবদুল্লাহ আল মামুনকে প্রধান করে ৫ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

পশ্চিমাঞ্চল রেলের মহাব্যবস্থাপক খন্দকার শহিদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় রাত থেকে রাজশাহী-ঢাকা, রাজশাহী-খুলনা এবং রাজশাহী-পার্বতিপুর রুটে রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। উদ্ধার কাজ শেষ হলে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হবে।

রাতে উদ্ধার কাজ শুরু হলেও বেশি দূর এগুতে পারেনি। আজ সকাল থেকে জোরেশোরে উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। দুর্বল ও পুরনো রেল হওয়ায় লোড বেশি থাকায় এমনটা হয়েছে বলেও জানান তিনি।