বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল আট কিশোরী

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬

বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল আট কিশোরী

সিরাজগঞ্জ ও উলিপুর প্রতিনিধি ৭:৫৪ অপরাহ্ণ, জুন ০৮, ২০১৯

print
বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল আট কিশোরী

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুর রহমান এক দিনে সাতটি বাল্যবিয়ে বন্ধ করেছেন। শনিবার দুপুরে এ খবর নিশ্চিত করে পৌর ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম জানান, গত শুক্রবার দুপুর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে এসব বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়।

বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে ছোনগাছা ইউনিয়নের পোটল ছোনগাছা গ্রামের মো. আব্দুল জলিলের মেয়ে ও স্থানীয় উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী শারমিন সুলতানার (১৪), ফুলবয়ড়া মোখলেছুর রহমানের মেয়ে ও দশম শ্রেণির ছাত্রী মহুয়া খাতুন (১৪), রূপের বেড় গ্রামের গোলাম রব্বানীর মেয়ে সুবর্ণা খাতুন মীম (১৪), বহুলী ইউনিয়নের কদমপালের মফিজ উদ্দিনের মেয়ে তামান্না খাতুন (১৫), ধুকুরিয়া গ্রামের ফেরদৌস শেখের মেয়ে ফারজানা খাতুন (১৩), কড্ডা কৃঞ্চপুর ভূইয়াপাড়া এলাকার হোসনেয়ারা খাতুন (১৭), কুড়িপাড়া গ্রামের বাবলু ম-লের মেয়ে ও স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী মিম খাতুন (১১)।

সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুর রহমান জানান, গত শুক্রবার দুপুর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাতটি বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়। প্রত্যেক মেয়েকে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না মর্মে বাবা-মার কাছ থেকে মুচলেকা ও জরিমানা করা হয় বলে তিনি জানান।

অন্যদিকে, কুড়িগ্রামের উলিপুরে থানা-পুলিশের তৎপরতায় বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী। এ সময় কাজী-ইমাম, বর ও কনেপক্ষের নয়জনকে আটক করে পুলিশ।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আটজনকে ছয় মাস করে কারাদণ্ড দিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল কাদের।

এ ছাড়া একজনকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার রাত ১২টার দিকে পৌর কাজী অফিসে।