স্ত্রীর লাশ অন্যের বাড়ি রেখে পালাল স্বামী

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১ আশ্বিন ১৪২৬

স্ত্রীর লাশ অন্যের বাড়ি রেখে পালাল স্বামী

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি ৯:১৮ অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০১৯

print
স্ত্রীর লাশ অন্যের বাড়ি রেখে পালাল স্বামী

নাটোরের গুরুদাসপুরে স্ত্রীর লাশ অন্যের ফাঁকা বাড়িতে রেখে পালিয়েছে স্বামী ও তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন। পরে প্রতিবেশীরা লাশটি নিয়ে তার স্বামীর বাড়িতে রেখে আসেন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ হাজির হয়ে স্থানীয় লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ এবং লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুত করে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ধারাবারিষা ইউনিয়নের ঝাকড়া গ্রামে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার মকিমপুর এলাকার মৃত সবোর উদ্দিনের মেয়ে রিমা (২৭) খাতুনের সঙ্গে ঝাকড়া গ্রামের আবুল হারেজের ছেলে মো. বাবুর (৩০) বিয়ে হয়। তাদের দুটি ছেলেসন্তানও আছে। একজনের বয়স আট বছর আরেক জনের বয়স পাঁচ বছর। বাবু নেশাগ্রস্ত। সে মাঝে মাঝেই নেশা করে বাড়িতে এসে তার স্ত্রী রিমাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত। অনেক দিন স্বামীর নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে রিমা গ্যাস ট্যাবলেট (ইঁদুর মারার বিষ) পান করে। এর কিছুক্ষণ পর ঘটনা জানাজানি হলে শ্বশুরবাড়ির সবাই মিলে অটোরিকশায় করে রিমাকে নিয়ে যায় গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

রমার অবস্থা গুরুতর দেখে রাজশাহী মেডিকেলে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। তবে রাজশাহী যাওয়ার পথে রিমা মারা যান। তখন অ্যাম্বুলেন্সে করে রিমার লাশ তার স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন বাড়ির পাশে অন্যের ফাঁকা বাড়িতে রেখে সবাই পালিয়ে যায়।

গুরুদাসপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহা. আনারুল ইসলাম বলেন, রিমার শ্বশুরবাড়ির লোকজন সবাই পলাতক আছে। স্থানীয় লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনার বিষয়ে জানার চেষ্টা করছি।