ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪ | ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

নাটোরে বিএনপি নেতাকর্মীদের বহনকারী মাইক্রোবাসে অগ্নিসংযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর
🕐 ৪:৫১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২৩

নাটোরে বিএনপি নেতাকর্মীদের বহনকারী মাইক্রোবাসে অগ্নিসংযোগ

নাটোরে বিএনপির রোড মার্চে যাওয়ার পথে বিএনপি নেতাকর্মীদের বহনকারী মাইক্রোবাস ও প্রাইভেটকারে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা ও মারপিট করার অভিযোগ করেছে জেলা বিএনপি। আহতদের বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ রোববার সকালে সদর উপজেলার ডাল সড়ক, তেবাড়িয়া ও সৈয়দ মোড় এলাকায় ঘটনাগুলো ঘটে।

জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সদস্য সচিব দেওয়ান শাহীন জানান, বিএনপির রোর্ড মার্চ সফল করার লক্ষ্যে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে নেতাকর্মীরা গাড়ী নিয়ে বের হয়। এ সময় সদরের ডাল সড়ক এলাকায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বহনকরী একটি হাইয়েস গাড়ী থামিয়ে সরকার দলীয় ক্যাডাররা নেতাকর্মীদের মারধর করে এবং গাড়ীতে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। এছাড়াও সৈয়দ মোড় ও তেবাড়িয়া এলাকায় তাদের নেতাকর্মীদের আরো দুইটি গাড়ী ভাংচুর ও পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। এতে তাদের ১৩ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে বিএনপির করা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে আওয়ামী লীগ নেতারা।

নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম রমজান জানান, বিএনপির লং মার্চ কর্মসুচি ছিল। সেই কর্মসুচি তারা তাদের মতো করে পালন করছে। আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে লং মার্চ কর্মসুচিতে বাধা দেওয়ার কোনও সিন্ধান্ত নেই। আমরা শুনেছি ডালসড়ক এলাকায় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। সেটা গাড়িতে থাকা সিলিন্ডার ফেটেও হতে পারে। অথবা বিএনপির লোকজনই নিজেরা নিজেদের গাড়ি পুড়িয়ে দিতে পারে, ভাংচুর করতে পারে। জনগন এইসব লং মার্চ মিছিল , মিটিং হরতাল কোথাও বিএনপির কোনও কর্মসচিতে অংশগ্রহন করেনা। যার কারণে বিএনপি দেশে নানা ধরণের গুজব ও গজব ছড়ানোর চেষ্টা করছে। বিভিন্ন বিষয়ে আওয়ামী লীগকে জড়ানোর চেষ্টা করছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাছিম আহম্মেদ জানান, গাড়ীতে আগুন ধরেছে খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের সহযোগীতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। তবে গাড়ীতে কিভাবে আগুন ধরেছে বা গাড়ীতে কারা ছিল তা তিনি জানেন না। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

 

 
Electronic Paper