এক আগুনেই সবার মৃত্যু

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

এক আগুনেই সবার মৃত্যু

জয়পুরহাট প্রতিনিধি ১০:৩৩ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ০৮, ২০১৮

print
এক আগুনেই সবার মৃত্যু

জয়পুরহাট শহরে বৈদ্যুতিক গোলযোগ থেকে এক বাড়িতে আগুন লেগে পরিবারের আট সদস্যের সবার মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাত ১০টার দিকে জয়পুরহাট শহীদ জিয়া ডিগ্রি কলেজের কাছে শহরের আরামনগর এলাকায় দুলাল হোসেনের আধা পাকা বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

জয়পুরহাট ফায়ার স্টেশনের পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দুলালের স্ত্রী মোমেনা বেগম (৬৫) তাদের ছেলে আব্দুল মুমিন (৩৭) ও মুমিনের মেয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী বৃষ্টির (১৪) পোড়া লাশ উদ্ধার করে।

এছাড়া দুলাল হোসেন (৭১), মোমিনের স্ত্রী পরী বানু (৩০), তাদের অন্য দুই যমজ মেয়ে হাসি ও খুশি (১২) এবং ছেলে আব্দুর নূরকে (৬) আশঙ্কাজনক অবস্থায় পাঠানো হয় জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে।

সেখান থেকে ওই পাঁচজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নেওয়ার পথে ভোরে ও সকালে এক এক করে সবার মৃত্যু হয় বলে জয়পুরহাট পুলিশ সুপার রশিদুল হাসান জানান।

আহতদের ঢাকার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া অ্যাম্বুলেন্সের চালক মজনু মিয়া বলেন, দগ্ধদের দুটি অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নেয়ার পথে যমুনা সেতু পার হওয়ার আগেই বৃহস্পতিবার ভোরে চারজনের মৃত্যু হয়। এসময় একটি অ্যাম্বুলেন্স লাশ নিয়ে জয়পুরহাটের উদ্দেশে ফিরে আসে। কিন্তু দুলাল হোসেন বেঁচে থাকায় তাকে বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সটি বাকি লাশগুলো নিয়ে ঢাকার দিকেই যাচ্ছিল। পথে টাঙ্গাইলে পৌঁছালে সকালে দুলাল হোসেনও মারা যান। এখন ওই অ্যাম্বুলেন্সটিও জয়পুরহাটের উদ্দেশে রওনা হয়েছে।

এ ঘটনায় নিহতরা হলেন, আরামনগর এলাকার দুলাল হোসেন (৬৫), তার স্ত্রী মোমেনা বেগম (৬০), ছেলে মোমিন আহম্মেদ (৩৫), মেয়ে জেএসসি পরিক্ষার্থী বৃষ্টি (১৪), দুলালের জমজ মেয়ে হাসি (১৫), খুশি (১৫), মোমিনের স্ত্রী পরিনা বেগম (৩২) ও দেড় বছরের ছেলে নূর।