রাণীনগরে ঝড়ের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড শতাধিক ঘরবাড়ি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২ | ১৫ আষাঢ় ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

রাণীনগরে ঝড়ের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড শতাধিক ঘরবাড়ি

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি
🕐 ৯:২২ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০২২

রাণীনগরে ঝড়ের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড শতাধিক ঘরবাড়ি

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় ঝড়ের ব্যাপক তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে প্রায় শতাধিক ঘর বাড়ি। গত দুই রাতে উপজেলার কামতা, হাড়াইল, শংঙ্করপুর ও খট্টেশ^র গ্রামসহ বেশ কয়েকটি গ্রামে এসব ঘর বাড়ি ঝড়ে বিধ্বস্ত হয়। ফলে চড়ম ক্ষতির মুখে পড়েছেন ঘর বাড়ির মালিকরা।

সরেজমিনে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে জানা যায়, উপজেলায় গত বৃহস্পতিবার রাতে ও শুক্রবার রাতে ব্যাপক ঝড় শুরু হয়। এই দুই দিনের রাতের ঝড়ে মুহুর্তেই উপজেলার কামতা, হাড়াইল হিন্দুপাড়া, শংঙ্করপুর ও খট্টেশ^র গ্রামসহ বেশ কয়েকটি গ্রামে প্রায় শতাধিক ঘর বাড়ির টিনের চালা উড়িয়ে নিয়ে যায়। আবার কারও কারও মাটির বাড়ি ও বাড়ির প্রাচীর ঝড়ে ভেঙ্গে গেছে। এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাজারে দোকানপাটও লন্ডভন্ড হয়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলার হাড়াইল হিন্দুপাড়া গ্রামের রাখাল চন্দ্র জানান, ১০ থেকে ১৫ মিনিটের ঝড়ে আমার একতলা বাড়ি টিনের চালা পুরোটাই উড়ে গিয়ে টিন নষ্ট হয়ে গেছে। পরিবার নিয়ে অন্যের বাড়িতে থেকে ঘর বাড়ি ঠিক করা শুরু করেছি। তিনি জানান, শুধু আমার বাড়ি না গ্রামের অনেকের ঘর বাড়ি এভাবে ঝড়ে নষ্ট হয়েছে। আমরা খেটে খাওয়া মানুষ, বাড়িতে একমোটো খাবারের কিছু নেই। এরপরেও এখন পর্যন্ত কেউ আমাদের কোন খোঁজ খবরও নেননি।

ক্ষতিগ্রস্ত কামতা গ্রামের আব্দুল মজিদ জানান, ঝড়ে আমার বাড়ির সব টিন উড়ে গেছে। এছাড়া বাড়ির প্রাচীর ও গরুর ঘরের চাল উড়ে যায় গিয়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়।

সদরের খট্টেশ^র গ্রামের মোজাম্মেল সরদার জানান, এই ঝড়ের তান্ডবে আমার বাড়ির টিনের চালাসহ বাড়ির বারান্দার চালা উড়ে যায়। এতে করে আমার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

রাণীনগর উপজেলা নিবাহী কর্মকর্তা শাহাদত হুসেইন বলেন, ঝড়ের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করা হচ্ছে। তবে কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে তা এখনো নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি। ক্ষতিগ্রস্তদের খাদ্য সহায়তা দেওয়া হবে। পরবর্তীতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বুঝে নগদ অর্থ ও টিন দেওয়ার উদ্দ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

 
Electronic Paper