নগরায়ণের অভিষেক ও শিল্প বিপ্লব

ঢাকা, সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০ | ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

নগরায়ণের অভিষেক ও শিল্প বিপ্লব

ইকবাল হোসেন জীবন ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০২০

print
নগরায়ণের অভিষেক ও শিল্প বিপ্লব

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা/ নজরুলেরই বাংলাদেশ/ জীবনানন্দের রূপসী বাংলা/ রূপের সে নাই যে শেষ। মীরসরাইয়ের গ্রামীণ অর্থনীতির পুরোটা জুড়ে রয়েছে কৃষি অর্থনীতি, কৃষিনির্ভর অর্থনীতির জনগোষ্ঠীর শত শত বছরের পুরনো পেশা। বর্তমানে আশপাশে আনাগোনা দেখা দিয়েছে, নতুন নতুন শিল্পস্থাপনা, গ্রামীণ অবকাঠামোর ভিতরে ঢুকে পড়েছে নগরায়ণের ছোঁয়া। কসমোপলিটন, মেট্রেপলিটন কিংবা সিটি করপোরেশন নামীয় নগর সভ্যতার অনুপ্রবেশ এর আগে বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর যে ধরনের প্রস্তুতি থাকা দরকার বলা চলে, মীরসরাইবাসীর তেমন কোনো প্রস্তুতি নেই। ইতিমধ্যে, বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরীর ঘোষণার পর আগামী দশকে মীরসরাইয়ের বর্তমান জনসংখ্যার সঙ্গে নতুন জনসংখ্যা কী পরিমাণ যোগ হবে, তাদের বসবাসের ঘনত্ব কতটুকু পরিবেশ প্রতিবেশকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে কিংবা মানুষের সঙ্গে সামাজিক উন্নয়ন সাধিত হবে এ নিয়ে এখনো পর্যন্ত মৌলিক কোনো গবেষণা বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা পরিবেশ বাদী সংগঠনগুলো থেকে করা হয়নি। আগামী নগরায়ন, কর্মসংস্থান এবং ফসলি কৃষিজমি নিয়ে গবেষণালব্ধ সুদূরপ্রবাসী পরিকল্পনা না থাকলে, স্বল্পমেয়াদি, মধ্যমেয়াদি পরিকল্পনা না করলে মীরসরাইবাসীর যাপিত জীবনের ছন্দ পতন হওয়ার আশঙ্কা প্রচুর। মীরসরাইয়ের শিল্পনগরী, কৃষিজ প্রণালি জমি, পরিবেশ প্রতিবেশ নিয়ে আগামী একশত বছরকে সামনে রেখে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা প্রয়োজন।

স্ব-স্ব ক্ষেত্রে বিশেজ্ঞদের মতামত নিয়ে পরিকল্পনা না করলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি মীরসরাই অঞ্চলটি এবং বসবাসকারী মানুষগুলোর জীবন হুমকির মধ্যে পড়তে পারে। নগরসভ্যতার চাহিদা বর্তমান বিশ্বে মানুষের জন্মগত এবং বাস্তব চাহিদা, বাস্তবতাকে অস্বীকার করার কোনো সুযোগ নেই। উৎপাদনমুখী শিল্প এবং কৃষিজ শিল্পের মেলবন্ধন না হলে তৃণমূল প্রান্তিক জনগোষ্ঠী তার মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হবে। কৃষিপ্রধান অর্থনীতির দেশে কৃষিকে আশি শতাংশ গুরুত্ব না দিলে, মানুষের প্রতিনিয়ত জীবনচক্র অসম প্রতিযোগিতার মুখে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্ক থেকেই যাবে। যে কোনো শিল্পের আগমনকে অভিনন্দন জানাতে হবে। তার সঙ্গে সঙ্গে অতি মাত্রায় সর্তকতা না থাকলে আসন্ন বিপদ মোকাবিলা করার কোনো সুযোগ থাকবে না। মানুষের প্রয়োজনে শিল্প, শিল্পের প্রয়োজনে মানুষ নয়। মানুষের জীবনমান অক্ষুণ্ণ রেখে শিল্পকে ঢেলে সাজালে মানব সভ্যতা টিকে থাকবে। শিল্পের কারণে মানুষের জীবন হুমকির মধ্যে পড়ে গেলে মানুষ মানবেতর জীবনযাপন করতে বাধ্য হবে। রাজধানীর আশপাশের জেলাগুলোতে শিল্পের বিকাশ কারও জন্য পৌষ মাস আবার কারও জন্য সর্বনাশ ঢেকে এনেছে। অপরিকল্পিত শিল্পায়ন, নগরায়ণ এবং মানুষের ঘনত্ব রাজধানীর প্রতিবেশী জেলাগুলোর প্রকৃতি অনেকটা মৃতপ্রায় হয়ে পড়েছে। পরিবেশ, প্রতিবেশ এবং মারাত্মক হুমকির কারণে চরম প্রাকৃতিক ভারসাম্যহীতায় ভুগছে মানুষ।

মীরসরাইয়ের শিল্পের বুনিয়াদের সঙ্গে মনে রাখা দরকার, বিশাল জনগোষ্ঠীর ৬ লাখ অধিবাসী নব্বই শতাংশ মানুষ কৃষিজ জমির উৎপাদননির্ভর অর্থনীতির সঙ্গে জড়িত। কৃষিজ অর্থনীতি কৃষিজ শিল্পকে প্রাধান্য দিয়ে বিদেশি কাঁচামালনির্ভর শিল্পের বিকাশে অতিমাত্রার সতর্ক থাকা বাঞ্ছনীয়। পুকুরভরা মাছ, গোয়ালভরা গরু, কিশোর-কিশোরীদের খেলার মাঠ, জলাশয়, ডোবাসহ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য অক্ষুণ্ণ না থাকলে, কৃষি অর্থনীতি নির্ভরতা কমিয়ে শুধু বিলাসী শিল্প স্থাপনার মাধ্যমে শ্রম বিনিয়োগের বিপরীতে অর্থনীতি আমাদের একমাত্র স্থানীয় অর্থনীতি হতে পারে না। নগরসভ্যতার বিকাশের সঙ্গে সঙ্গে কৃষিনির্ভর অর্থনীতির কথা ভুলে গেলে ঐতিহ্যের খনার বচন, ‘পুকুরভরা মাছ, গোয়ালভরা গরু’ হয়ত আর নাই থাকতে পারে। মীরসরাইয়ের সচেতন মানুষকে নগরায়নের জন্য শিল্প বিপ্লব এবং কৃষিজ শিল্প বিপ্লবের মেলবন্ধন সম্পর্কে পরীক্ষা নিরীক্ষা পর্যবেক্ষণ করার এখনই উপযুক্ত সময়।

মীরসরাইয়ের শিল্পের বুনিয়াদের সঙ্গে এক কথা মনে রাখা দরকার, বিশাল জনগোষ্ঠীর ৬ লক্ষ অধিবাসী নব্বই শতাংশ মানুষ কৃষিজ জমির উৎপাদননির্ভর অর্থনীতির সঙ্গে জড়িত, কৃষিজ অর্থনীতি কৃষিজ শিল্পকে প্রাধান্য দিয়ে কাঁচামালনির্ভর শিল্পের বিকাশে অভিমাত্রার সতর্ত থাকা বাঞ্ছনীয়। পুকুরভরা মাছ, গোয়ালভরা গরু, কিশোর-কিশোরীদের খেলার মাঠ, জলাশয় ডোবাসহ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য অক্ষুণ্ণ না থাকলে, কৃষি অর্থনীতিনির্ভরতা কমিয়ে শুধু বিলাসী শিল্প স্থাপনার মাধ্যমে শ্রম বিনিয়োগের বিপরীতে অর্থনীতি আমাদের একমাত্র স্থানীয় অর্থনীতি হতে পারে না। নগরসভ্যতার বিকাশের সঙ্গে সঙ্গে কৃষিনির্ভর অর্থনীতির কথা ভুলে গেলে ঐতিহ্যের বচন, ‘পুকুরভরা মাছ, গোয়াল ভরা গরু’ হয়তো আর নাই থাকতে পারে। মীরসরাইয়ের সচেতন মানুষকে নগরায়ণের জন্য বিপ্লব এবং কৃষিজ শিল্পবিপ্লবের মেলবন্ধন সম্পর্কে পরীক্ষা নিরীক্ষা পর্যবেক্ষণ করার এখনই উপযুক্ত সময়।

ইকবাল হোসেন জীবন : শিক্ষার্থী, বাংলা বিভাগ, ফেনী সরকারি কলেজ
jibonmirsarai@gmail.com