আতঙ্ক নয়, সচেতনতাই রক্ষাকবচ

ঢাকা, শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০ | ২৬ চৈত্র ১৪২৬

আতঙ্ক নয়, সচেতনতাই রক্ষাকবচ

খোলামত ডেস্ক ৬:১২ অপরাহ্ণ, মার্চ ২০, ২০২০

print
আতঙ্ক নয়, সচেতনতাই রক্ষাকবচ

পৃথিবীটা আজ ভয়াবহ সময়ের মধ্য দিয়ে অতিবাহিত হচ্ছে । একটি আতঙ্কিত ভাইরাসের বাতাস বইছে বিশ্বব্যাপী। যে ভাইরাসটির নাম করোনা ভাইরাস ২০১৯ বা কোভিড ১৯। ১৯৬০ সালের দিকে প্রথম সনাক্ত হওয়া ভাইরাসটি এখন এক আতঙ্কের নাম। বিভিন্ন ধরনের করোনা ভাইরাসের মধ্যে মানুষে সংক্রমিত হয় সাতটি ভাইরাস। মানুষ এখন যেটি সংক্রমিত হচ্ছে এটি সম্পূর্ণ নতুন। ভাইরাসটির উৎপত্তি এখনো জানা যায়নি। তবে সাপ, বাদুড় বা অন্য কোনো প্রাণী থেকে ছড়িয়েছে বলে ধারণা করা হয়। ভাইরাসটি চীনের উহান থেকে বিশ্বের অধিকাংশ দেশে বিস্তার লাভ করেছে।

সাধারণত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে প্রাথমিকভাবে বুঝা যায় না। তবে আক্রান্ত ব্যক্তির জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট, গলাব্যাথা ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দেয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, সংক্রমণের ১৪ দিনের মধ্যে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ দেখা যাবে। তবে কোনো কোনো বিশেষজ্ঞ মনে করেন, পাঁচ দিনের মধ্যে এর লক্ষণ প্রকাশ পেতে পারে।

যেহেতু ভাইরাসটির কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি, তাই আমাদের সতর্কতা অবলম্বন করা ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই। সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হব, হাঁচি কাশিতে রুমাল বা টিস্যু ব্যবহার করতে হবে, বাইরে ঘোরাফেরা, ভ্রমণ, যেখানে সেখানে থুথু ফেলা থেকে বিরত থাকতে হবে, সাবান দিয়ে ঘনঘন হাত ধুতে হবে, ঠিকমত পানি পান করতে হবে, গরম পানি দিয়ে গড়গড়া কুলি করতে হবে, যথাসম্ভব নিজের চোখ ও নাক স্পর্শ থেকে বিরত থাকতে হবে।

যুগে যুগে পৃথিবীতে করোনার চেয়ে ভয়ানক যেমন- ইনফ্লুয়েঞ্জা, এইডস, সার্স-মার্স, জিকা, ইবোলা, পোলিওর মতো রোগ দেখা দিয়েছিল; কিন্তু মানুষের সতর্কতা আর সচেতনতার বলেই সেগুলো হতে মানুষ রক্ষা পেয়েছে। এ যাত্রায়ও আমাদের সতর্কতা-সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে।

মারুফ হোসেন, শিক্ষার্থী, ধর্মতত্ত্ব অনুষদ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া
abdullahalmaruf084@gmail.com