গ্যাস ব্যবহারে চাই সাশ্রয়ী মনোভাব

ঢাকা, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১২ ফাল্গুন ১৪২৬

গ্যাস ব্যবহারে চাই সাশ্রয়ী মনোভাব

সম্পাদকীয় ৮:৫৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২১, ২০২০

print
গ্যাস ব্যবহারে চাই সাশ্রয়ী মনোভাব

দেশে গ্যাসের যে মজুদ আছে তা ১১ বছরেই শেষ হয়ে যাবে। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু ২০ জানুয়ারি সংসদে এ তথ্য দিয়েছেন। প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশে বর্তমানে মোট ১০ দশমিক ৬৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট উত্তোলনযোগ্য গ্যাসের মজুদ রয়েছে। যা ১১ বছর ব্যবহার করা যাবে।

তিনি একই সঙ্গে খননের প্রক্রিয়াধীন গ্যাসকূপের সংখ্যা ও তার অবস্থা সম্পর্কেও জানিয়েছেন। প্রতিমন্ত্রীর ভাষ্য অনুযায়ী ২০১৯-২১ সাল নাগাদ দুটি, ২০২২-২০৩০ সাল নাগাদ ১৩টি এবং ২০৩১-২০৪১ সাল নাগাদ ২০টি অনুসন্ধান কূপ খননের পরিকল্পনা রয়েছে বাপেক্সের।

বাংলাদেশের অন্যতম খনিজসম্পদ হচ্ছে প্রাকৃতিক গ্যাস। এর উত্তোলন যেমন হচ্ছে তেমন হচ্ছে বহুবিধ ব্যবহারও। রান্নার চুলা থেকে শুরু করে সার উৎপাদন, বিদ্যুৎ উৎপাদন, শিল্প-কলকারখানায় গ্যাসের ব্যবহার হচ্ছে। মানুষের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে কিন্তু গ্যাসের যে ভাণ্ডার তা সীমিত। প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য আমাদের সবার জন্য একটি সতর্কবার্তাও। গ্যাস ব্যবহারের ক্ষেত্রে নানা অভিযোগ রয়েছে। ঘর-গৃহস্থালিতে গ্যাসের ব্যবহারে অপচয়ের বিষয়টি দীর্ঘদিন ধরেই আলোচিত-সমালোচিত একটি বিষয়।

আবার বাণিজ্যিক ব্যবহার অর্থাৎ শিল্প-কলকারখানায় গ্যাস ব্যবহার হলেও তার বিল বা দাম পরিশোধ করা নিয়ে অভিযোগের অন্ত নেই। প্রাকৃতিক গ্যাস জাতির সম্পদ, জনগণের সম্পদ, সে সম্পদ ব্যবহারের মূল্য পরিশোধে গড়িমসি করেন একটি শ্রেণি। অনেক সময় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানও এ বিষয়টিকে খুব গুরুত্ব সহকারে দেখে বলে মনে হয় না। আবার এমন অভিযোগও আছে সংশ্লিষ্টদের নানাভাবে ‘ম্যানেজ’ করেও ‘বিল’ দিচ্ছেন না বছরের পর বছর। এসব ক্ষেত্রে সরকারকে কঠোর হতে হবে।

গ্যাস ব্যবহারে প্রতিটি ভোক্তাকে সাশ্রয়ী মনোভাবের হতে হবে, গ্যাস ব্যবহারে ‘প্রিপেইড মিটার’-এর ব্যবহারের ওপরও জোর দিচ্ছেন অনেকে। ‘প্রিপেইড মিটার’ বা ‘কার্ড’ গ্যাস ব্যবহারে মানুষকে সাশ্রয়ী করে তুলতে পারে। একই সঙ্গে প্রাকৃতিক গ্যাসের বিকল্প জ্বালানি নিয়েও আমাদের ভাবতে হবে। এক্ষেত্রে বেশ জোরেশোরে উচ্চারিত হচ্ছে সৌরশক্তি ব্যবহারের কথা। সৌরশক্তি হচ্ছে অফুরন্ত।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়কে সৌরশক্তির ব্যবহারে আরও বেশি মনোযোগী হতে হবে। গ্যাসের নতুন নতুন কূপ খননের যে পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে নিশ্চয়ই তার মধ্য থেকে আমরা সুখবর পাব। তবে আপাতত গ্যাসের মজুদ নিয়ে যে তথ্যটি এসেছে সেটিই বাস্তবতা, এই বাস্তবতাকে মাথায় রেখেই গ্যাস ব্যবহারে আমাদের সাশ্রয়ী ও সতর্ক হতে হবে।