আলোকবর্তিকা বেগম রোকেয়া

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি ২০২০ | ৮ মাঘ ১৪২৬

পাঠকের কলাম

আলোকবর্তিকা বেগম রোকেয়া

আবদুস সালাম ৮:৪২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৯

print
আলোকবর্তিকা বেগম রোকেয়া

সৃষ্টি হওয়া পথে হাঁটা যত সহজ তার অনেক গুণ কঠিন হচ্ছে পথ সৃষ্টি করা। যেখানে থাকে নানা প্রতিবন্ধকতা। পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র কি বলবে বা ভাববে সেটা অতিক্রম করাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের। শিক্ষার অভাবে সৃষ্টি হয় নানা কুসংস্কার, যা সমাজ ও জাতিকে অধঃপতনের দিকে ঠেলে দেয়।

যা মূলত সশিক্ষার অভাবের দরুণ হয়ে থাকে। কোন পথিক যদি স্বেচ্ছায় এসব বাধা বা প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে না নামে তাহলে সেখানে মানুষ আরও কুসংস্কারপন্থি হয় যার ফলাফল ভয়াবহ।

মধ্য যুগ থেকেই শিক্ষা সংস্কৃতি থেকে বিচ্ছিন্ন নারী সমাজ, বিশেষত মুসলিম নারীরা। এর ফলে পিছিয়ে পরে সমাজ ও রাষ্ট্র। দীর্ঘ সময় পর এসব প্রতিবন্ধকতা দূর করার জন্য দায় নিয়েছিলেন রংপুরে জন্ম নেওয়া এক নারী। যিনি পরিচিত বেগম রোকেয়া নামে। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না পেলেও দৃঢ় আত্মপ্রত্যয় আর ইচ্ছায় স্বশিক্ষা অর্জন করেছিলেন যার সহযোগী ছিলেন আপন ভাই ও স্বামী।

সাধনার মাধ্যমে পথ খুঁজে পেয়েছিলেন কীভাবে মুক্তি পাবে নারী এবং সমাজ ও রাষ্ট্র। অবশেষে বেরিয়েছিলেন লোকের মন্দ কথাকে তুচ্ছ করে, প্রতিষ্ঠা করেছিলেন নারী সমিতি, গার্লস স্কুল। জাগ্রত করেছেন সমাজকে যার জন্য পথ হাঁটতে হয়েছিল বহুদূর। কেননা, সে সময় মেয়েদের স্কুলে যেতে দেওয়া হত না। সেটাই ছিল সমাজের রীতি।

সে সময় বেগম রোকেয়ার সংগ্রাম চলছিল মুক্তির পথ খোঁজার। শুরু হয়েছিল বাধ ভাঙার। শুধু তাই নয়, তিনি রচনা করেছেন অমর গ্রন্থমালা। যাতে সমাজের চিত্র ও অসঙ্গতির রূপ এঁকেছিলেন যা শিক্ষিত সমাজকে ভাবিয়ে তুলেছিল। তার ঐকান্তিক ইচ্ছা আর বাস্তবায়নের ফল আজকের বাংলাদেশে নারী প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, সাবেক প্রধানমন্ত্রী, অনেক এমপি, মন্ত্রী ও সমাজসেবক। আজও তিনি আদর্শ, কেননা, তিনি যে মশাল জ্বালিয়ে গেছেন তার আলো বৃদ্ধিমান। সেই আলো আর নেভানোর উপায় নেই। কেননা, সে আলোয় আলোকিত হয়েছে সমাজ ও রাষ্ট্র।তাই তো বলতে ইচ্ছে করে,

যে ছিল এক নারী, / যার লেখাতে উঠল জেগে / আঁধারের এক সারি,/যখন ছিল বদ্ধ নারী/পুরুষের বাহুডোরে,/বাহির হবার ছিল বাধা/থাকত আপন ঘরে,/অধিকার জাগাতে নেমেছিল পথে/এক সাহসী নারী,/যার লেখাতে উঠল ফুটে,/চিত্র সমাজেরই.আজি তার কারণে,/সমাজ চিত্র সমসম প্রায়/চলছে উচ্চতায়.যে ছিল সে নারী.বেগম রোকেয়া নামটি তাহার,/জ্ঞানের মশালধারী।

তারই পথে এগিয়ে যাক নারীরা, মায়েরা হোক জ্ঞানের আলোয় আলোকিত, সন্তানেরা করুক বিশ্বজয়, গর্বিত হোক বেগম রোকেয়ার জন্ম নেয়া মাটি রংপুর, ধন্য হোক পুরো বাংলাদেশ।

আবদুস সালাম : শিক্ষার্থী
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর।