থ্রম্বোসিস জনিত রোগ সম্পর্কে সচেতনতা তৈরির বিকল্প নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৫:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৩,২০২১

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো: শারফুদ্দিন আহমেদ বলেছেন, রক্ত জমাট বাঁধা বা থ্রম্বোসিস জনিত রোগ সম্পর্কে সর্বস্তরের জনগণের মাঝে সচেতনতা তৈরির কোন বিকল্প নেই।

আজ বুধবার দিবসটি উপলক্ষে আয়োজিত র‌্যালি শেষে আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

উপাচার্য বলেন, চিকিৎসা শাস্ত্রের বিভিন্ন বিভাগের সমন্বয়ে বিশেষায়িত ক্লিনিকের মাধ্যমে থ্রম্বোসিস রোগ সম্পর্কে এবং এর চিকিৎসা নিশ্চিত করার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। রোগী, রোগীর স্বজনকে স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারী এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের উদ্যোগ গ্রহণেরও আশ্বাস দেন তিনি।

এ বছর দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘আইস ওপেন টু থ্রম্বোসিস’। অর্থাৎ থ্রম্বোসিস বা রক্ত জমাট বাধার সমস্যার ব্যাপারে সজাগ থাকা।

সূত্র জানায়, সারা বিশ্বের মতো বিএসএমএমইউয়ে দিবসটি উদযাপিত হয়েছে। রক্ত জমাট বাঁধা বা থ্রম্বোসিস জনিত রোগ সম্পর্কে সর্বস্তরের জনগণের মাঝে সচেতনতা তৈরির উদ্দেশ্যেই এ দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে। থ্রম্বোসিস বলতে রক্তনালীতে অস্বাভাবিক রক্ত জমাট বাধাকে বোঝায়। শরীরে যেকোন কাঁটাছেড়ার পরে রক্ত জমাট বেঁধে রক্তপড়া বন্ধ হয়। এটি একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। কিন্তু কোন কারণে যদি অস্বাভাবিক ভাবে রক্তনালীর ভেতরে রক্ত জমাট বাঁধে, তাহলে রক্ত সঞ্চালন প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়।

রক্ত প্রবাহিত না হবার কারণে সেখানে কোষ গুলোর মৃত্যু হতে পারে এবং আক্রান্ত অঙ্গের কার্যক্ষমতা পুরোপুরি বা আংশিক নষ্ট হয়ে যেতে পারে। মস্তিস্কের রক্তনালীতে রক্ত জমাট বেঁেেধ স্ট্রোক হতে পারে। হৃদযন্ত্রের রক্তনালীতে রক্ত জমাট বাঁধার ফলে মায়োকার্ডিয়াল ইনফার্কশন বা হার্ট এটাক হতে পারে। পায়ের রক্তনালীতে রক্ত জমাট বাঁধার ফলে ডীপ ভেইন থ্রম্বোসিস হতে পারে। বিশেষ করে যারা লম্বা সময়ে অসুস্থতা বা অপারেশনের কারণে শয্যাশায়ী থাকেন বা যাদের ক্যান্সার বা অন্য কোন উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ রোগ থাকে তাদের এই সংকট হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

সূত্র জানায়, বর্তমান বিশ্বে মৃত্যুর বড় কারণ স্ট্রোক ও হৃদরোগের পেছনেও থ্রম্বোসিস দায়ী। থ্রম্বোসিস জনিত রোগের ভয়াবহতা বিবেচনায় এ ব্যাপারে সকলের সচেতনতা কাম্য। জীবনযাত্রার পরিবর্তন এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ঔষুধের মাধ্যমে থ্রম্বোসিস এর ঝুঁকি কমানো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পাশাপাশি থ্রম্বোসিস জনিত জরুরী রোগের ক্ষেত্রে দ্রুত জীবন রক্ষাকারী চিকিৎসা নিশ্চিত করার কোনো বিকল্প নেই।

জমাট বাঁধা রক্তের অংশ রক্তের সাথে পরিবাহিত হয়ে ফুসফুসের রক্তনালীতে আটকে ফুসফুসের রক্ত সঞ্চালনে বাঁধা সৃষ্টি করে পালমোনারি এম্বালিজম করতে পারে এবং মৃত্যুও ঘটাতে পারে। চলমান কোভিড প্যান্ডেমিকে মুত্যুর বড় অংশের পেছনে এই পালমোনারি এম্বোলিজমকে কারণ মনে করা হয়ে থাকে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হেমাটোলজী বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো: সালাহউদ্দিন শাহ, আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মোঃ জাহিদ হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, ডেন্টাল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়ল, মেডিসিন অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. মাসুদা বেগম, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. নজরুল ইসলাম খান।

সম্পাদক ও প্রকাশক : আহসান হাবীব

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: kholakagojnews7@gmail.com
            kholakagojadvt@gmail.com