নেটওয়ার্কের জন্য টাওয়ার চাই

হাদিউল হৃদয় / ১:২৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১,২০২০

প্রযুক্তির উৎকর্ষে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখি। দেশের নানা ক্ষেত্রে ইতোমধ্যে প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়েছে। সরকারের নানা সেবা এখন ইন্টারনেটে পাওয়া যাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপায়ণের প্রথম শর্ত সর্বত্র ইন্টারনেট সংযোগ প্রতিষ্ঠা করা এবং এর খরচ জনসাধারণের হাতের নাগালে রাখা। শতভাগ মানুষকে না পারলেও প্রতিটি পরিবারকে ইন্টারনেটের আওতায় নিয়ে আসতেই হবে। সরকারের এমন চিন্তাভাবনা থাকলেও দেশের মোবাইল নেটওয়ার্কের বিড়ম্বনায় চরম ভোগান্তিতে দিন কাটছে সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ উপজেলার তালম ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রাম- গোন্তা, পাড়িল, লাউতা, দেওঘর, পাড়িল বড়াইচড়া, তারাটিয়া, হারিসোনা। এ এলাকাটি অত্যন্ত বর্ধিষ্ণু।

ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেটসহ বিভিন্ন শহরে চাকরি করছেন, এমন ব্যক্তিদের পরিবারগুলো এ গ্রামগুলোতে বসবাস করছেন। তাছাড়া এলাকাটি কৃষিপ্রধান হওয়ায় প্রতিদিন অনেক শস্যপণ্য দেশের বিভিন্ন স্থানে এখান থেকে বিক্রির জন্য যায়। যোগাযোগব্যবস্থা ভালো থাকায় বিভিন্ন ধরনের ব্যবসা ও শিল্পকারখানা গড়ে উঠছে। ফলে এলাকাটি অত্যন্ত জনবহুল হয়ে উঠছে। এলাকায় মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনেক এবং তাদের বেশিরভাগই পেশাগত প্রয়োজনে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন। কিন্তু মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীরা নেটওয়ার্কের সমস্যার শিকার হচ্ছে। বিশেষ করে যাদের মাটির বাড়ি রয়েছে তাদের তো বাড়ির বাইরে এসে কথা বলতে হয়।

দেশে প্রযুক্তির নতুন সেবা ৪জি চালু হলেও এখানে ৩জি নামমাত্র সেবা মিলছে তাতে, ইন্টারনেট স্পিড কখনো কখনো ২জি গতিতেও দেখা মেলা ভার। নেটওয়ার্কের এই যখন অবস্থা, তখন নতুন করে আরেক সমস্যার উদ্ভব ঘটেছে, বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়ে উঠেছে নেটওয়ার্ক ভোগান্তি। ন্যূনতম নেটওয়ার্ক কাভারেজ খুঁজে পাওয়া হয়ে ওঠে দুষ্কর।

স্বাভাবিক ইনকামিং-আউটগোয়িং ব্যবস্থাতে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন থাকতে হচ্ছে গ্রাহকদের। এতে করে মোবাইল নেটওয়ার্কের ওপর নির্ভর কার্যক্রমসমূহে সেবা পেতে গ্রাহক তাদের দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় জরুরি কাজটুকুতে নেটওয়ার্ক সার্চ করতে গিয়ে অন্ধকারে হন্যে হয়ে হাতড়ে বেড়াচ্ছে। আর ভোগান্তির মাত্রা কেবলি দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে। মিলছে না সেই কাক্সিক্ষত নেটওয়ার্ক। ডিজিটাল যুগে আজও গোন্তাবাজারে কোনো মোবাইল কোম্পানির নেটওয়ার্ক ঠিকমতো পাওয়া যায় না।

এ বিষয়ে কোম্পানিগুলোর অফিস এবং হেল্পলাইনে একাধিকবার জানিয়েও প্রতিকার মেলেনি। এলাকায় সব কোম্পানির নেটওয়ার্ক অত্যন্ত দুর্বল। জরুরি কথা বলার সময় কলড্রপ, ইমাজেন্সি নেটওয়ার্কসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়।

আধুনিক প্রযুক্তির যুগে নেটওয়ার্কের এ অবস্থা মেনে নেওয়া যায় না। মোবাইল নেটওয়ার্কের সমস্যার কারণে এলাকার শিক্ষার্থীরা ডিজিটাল যুগেও পরীক্ষার ফলাফল, ভর্তি ও চাকরির আবেদন, মোবাইল ব্যাংকিংসহ অনলাইন সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এলাকার হাট-বাজার, ব্যবসা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তথ্যপ্রযুক্তি এবং অনলাইনভিত্তিক দৈনন্দিন কাজ ব্যাহত হচ্ছে।

হাদিউল হৃদয় : গণমাধ্যমকর্মী। তাড়াশ, সিরাজগঞ্জ

সম্পাদক ও প্রকাশক : আহসান হাবীব
উপদেষ্টা সম্পাদক : মোশতাক আহমেদ রুহী

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: kholakagojnews7@gmail.com
            kholakagojadvt@gmail.com