সব পুষিয়ে নিচ্ছেন পূজা চেরি

বিনোদন প্রতিবেদক / ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ, মে ১৭,২০২০

চিত্রনায়িকা পূজা চেরি লকডাউনের সেই শুরু থেকেই ঘরবন্দি। পরিবারের সঙ্গেই আছেন। কেমন করে কাটছে সময়? এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, বাসায় রান্না শেখার চেষ্টা করছি। এছাড়া পড়াশোনা করি, রূপচর্চা করি, ব্যায়াম করি। যখন শুটিংয়ে থাকি তখন রান্নাবান্না করার সুযোগ হয় না। ব্যায়াম করারও সময় পাই না। এজন্য এ সময়ে সব পুষিয়ে নিচ্ছি। এ সময়ে কী কী রান্না শিখলেন? তিনি বলেন, ডিম চপ, কেক বানানো শিখলাম।

বিরিয়ানি রান্নাও শিখছি। সহকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ হয়? এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এখন সবার সঙ্গেই যোগাযোগ হচ্ছে। যেমন কলকাতার সহকর্মীদের খোঁজ নিচ্ছি। তারা জানাচ্ছে কিভাবে ঘরবন্দি সময় কাটাচ্ছে। আমি জানাচ্ছি আমাদের অবস্থা।

এভাবে মোটামুটি সবার সঙ্গেই কথা বলছি, খোঁজ খবর নিচ্ছি। ফ্যানদের খবরও নিচ্ছি সুযোগ পেলে। তারা খুশি হয়। ঘরে বসে সচেতনতামূলক কী কাজ করলেন? নায়িকা বলেন, করোনা নিয়ে কয়েকটি ভিডিও বার্তা দিয়েছি। কয়েকটি গানে অংশ নিয়েছি।

এগুলোই করছি ঘরে বসে। সরকারের বিধি নিষেধ না মেনে অনেকেই বাইরে ঘুরছেন? তবে কী আমাদের সচেতনতার অভাব আছে মনে করেন? পূজা বলেন, আমাদের সচেতনতার অভাব তো আছেই। না হলে এমনটা হতো না। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে দেখছি মানুষ ব্যাপক হারে রাস্তায় বের হচ্ছে। বলা হচ্ছে বাসায় থাকতে, কিন্তু মানুষ থাকছে না। তারা সচেতন নয়। এই মহামারি আমাদের কাজে কেমন প্রভাব ফেলেছে?

‘পোড়া মন’খ্যাত এ নায়িকা বলেন, মিডিয়ার সকল কাজে প্রভাব ফেলেছে করোনা। সবকিছু পিছিয়ে গেছে। সিনেমার রিলিজ স্থগিত হয়ে গেছে, সিনেমাহল বন্ধ হয়ে গেছে। শুটিং চলতি সব সিনেমার কাজ বন্ধ।

আমার ‘জ্বীন’ সিনেমার কাজ আমি শেষ করেছি। ওটা এর মধ্যে হয়তো রিলিজ হয়ে যেত। ‘সাইকো’ সিনেমার কয়েকদিনের শুটিং বাকি আছে। এ ছাড়া ‘শান’ সিনেমার দুটি গানের শুটিং বাকি। করোনা না থাকলে কাজগুলো হয়ে যেত। এছাড়া আমার প্রথম বর্ষ ফাইনাল পরীক্ষা ছিল এপ্রিলে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : আহসান হাবীব
উপদেষ্টা সম্পাদক : মোশতাক আহমেদ রুহী

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: kholakagojnews7@gmail.com
            kholakagojadvt@gmail.com