ক্রান্তিকালেও চাল চুরি!

পটুয়াখালী ও রানীনগর প্রতিনিধি / ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ০৩,২০২০

সারাবিশ্বে মহামারি আকার ধারণ করেছে করোনা ভাইরাস। সম্প্রতি বাংলাদেশেও হানা দিয়েছে ভারাইসটি। এর বিস্তার রোধে সারা দেশে সব ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে সরকারি ও বেসরকারি অফিস, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠা, গণপরিবহন চলাচল। এতে কর্মহীন হয়ে পড়েছে লাখ লাখ শ্রমজীবী। কাজ না পেয়ে তাদের কপালে পড়েছে চিন্তার ভাঁজ। অসহায় এ মানুষগুলোর ক্ষুধা নিবারণে সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া হচ্ছে খাদ্য সহায়তা। অথচ এক শ্রেণীর ব্যবসায়ী গরিবের এ খাবার মজুদ করে রাখছেন। অধিক মুনাফার লোভে গোপনে তা বিক্রি করছেন কালোবাজারে।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নওগাঁর রানীনগর উপজেলার রাতোয়াল শলগাড়ীয়াপাড়ায় ব্যবসায়ী আয়েত আলীর বাড়ি থেকে ভিজিডি ও ১০ টাকা কেজি দরের ভিজিএফের প্রায় ছয় টন চাল উদ্ধার করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আল-মামুন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার কালিগ্রাম ইউনিয়নে ভিজিডির চাল বিতরণ চলছিল। সেখানে ট্যাগ অফিসার হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন রানীনগর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খন্দকার মাকাম্মাম মাহমুদা। তিনি গোপন সংবাদে জানতে পারেন ব্যবসায়ী আয়েত আলীর বাড়িতে ক্রয়-বিক্রয় নিষিদ্ধ সরকারি চাল মজুদ করেছে। পরে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে খবর দেন। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল-মামুন থানা পুলিশ ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। ব্যবসায়ী আয়েত আলীর বাড়ি তল্লাশি করে প্রায় ছয় টন চাল উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন জানান, অনিয়ম করে ব্যবসায়ী আয়েত আলী সরকারি চাল ক্রয় করে মজুদ করেছেন। আমরা অভিযান চালিয়ে প্রায় ছয় টন চাল এবং ১৩৮টি খালি বস্তা উদ্ধার করেছি। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে ব্যবসায়ী আয়েত আলী পলাতক থাকায় তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

অন্যদিকে, গত ৩০ মার্চ রাতে পটুয়াখালীতে সরকারি ১০ বস্তা চালসহ দুজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে এলাকাবাসী। সদর উপজেলার উত্তর ধরান্দি বাজার থেকে এ চাল উদ্ধার করা হয়।

কলাগাছিয়া ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. সাইদুল ইসলাম জানান, রাত ১২টার দিকে ধরান্দি এলাকার জাকির হোসেন নামে এক চালকের টমটমে ১০ বস্তা চাল নিয়ে উত্তর ধরান্দি বাজারে সোহাগের দোকানের সামনে নিয়ে যায়। এ সময় সোহাগ ও টমটম চালক জাকির চালের বস্তা দোকানে নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এলাকাবাসী তাদের হাতে নাতে ধরে পুলিশে খবর দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ১০টি বস্তায় প্রায় ৪০০ কেজি চালসহ টমটম চালক জাকির হোসেন ও ব্যবসায়ী সোহাগকে আটক করে। ধরান্দি এলাকার বশির সিকদার তার বাড়িতে রাখা চাল জাকিরকে দিয়ে সোহাগের দোকানে বিক্রি করতে পাঠান। বাজারের সাধারণ বস্তায় ভর্তি করা চাল সরকারি বলেও নিশ্চিত করেন ওসি। গতকাল মঙ্গলবার তাদের সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লতিফা জান্নাতি বলেন, চালসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে। জব্দকৃত চাল সরকারি কিনা সেটা তদন্ত করে নিশ্চিত হওয়ার পর জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

সম্পাদক ও প্রকাশক : আহসান হাবীব
উপদেষ্টা সম্পাদক : মোশতাক আহমেদ রুহী

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: kholakagojnews7@gmail.com
            kholakagojadvt@gmail.com