পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের

ফাতেমা বেগম / ১:৫০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০১,২০২০

যোগ্যতাভিত্তিক ও সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর
প্রশ্ন : অতিরিক্ত জনসংখ্যা থাকলে শিক্ষার কী সমস্যা হয়?
উত্তর : শিক্ষা মানুষের অন্যতম মৌলিক চাহিদা। অতিরিক্ত জনসংখ্যা শিক্ষার ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে।
অতিরিক্ত জনসংখ্যার ফলে শিক্ষার সমস্যা : একটি দেশের অন্যতম সম্পদ হচ্ছে সে দেশের শিক্ষিত জনগোষ্ঠী। কিন্তু বাংলাদেশের জনসংখ্যার অর্ধেকের বেশি অক্ষরজ্ঞান নেই। শিক্ষার ক্ষেত্রে সফলতা আসা সত্ত্বেও শিক্ষার হার বাড়ছে না। এর প্রধান কারণ হচ্ছে সম্পদের তুলনায় অতিরিক্ত জনসংখ্যা। এ কারণে শিক্ষা খাতে প্রয়োজন অনুযায়ী শ্রেণিকক্ষ, শিক্ষক ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া যাচ্ছে না। আবার অনেক দরিদ্র মা-বাবা সব সন্তানকে বিদ্যালয়ে পাঠাতে পারেন না।
এর ফলে অনেক শিশু বিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারে না বা লেখাপড়া শেষ না করে ঝরে পড়ে।

প্রশ্ন : জনসম্পদ কাকে বলে?
উত্তর : জনসম্পদ হচ্ছে কোনো দেশের শ্রমশক্তি। একটি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে তিনটি উপাদানের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে জনসম্পদ। এ দেশের অতিরিক্ত জনসংখ্যাকে দক্ষ জনসম্পদে রূপান্তরের মাধ্যমে অর্থনৈতিক উন্নয়ন সম্ভব বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।
প্রশ্ন : জনসংখ্যাকে জনসম্পদে রূপান্তরের পাঁচটি উপায় লিখ।
উত্তর : মূলধন ও প্রাকৃতিক সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার নির্ভর করে দক্ষ জনসম্পদের ওপর। তাই দক্ষ জনসম্পদ অর্থনৈতিক উন্নয়নের অন্যতম প্রধান ও অপরিহার্য শর্ত। জনসংখ্যাকে জনসম্পদে রূপান্তরের পাঁচটি উপায় হলো-
শিক্ষা : মানবসম্পদ উন্নয়নের মূল উপাদান হচ্ছে শিক্ষা। শিক্ষা ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়নের মাধ্যমে জনসম্পদকে দক্ষ করে তোলা যায়। তাই শিক্ষা ব্যবস্থাকে যুগোপযোগী করে জনসম্পদকে আরও সমৃদ্ধ করার প্রতি সরকারকে দৃষ্টি দিতে হবে। কর্মমুখী শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য কারিগরি শিক্ষার প্রসার প্রয়োজন।
দক্ষতা বৃদ্ধি : শ্রমশক্তির দক্ষতা বৃদ্ধির পূর্বশর্ত হলো শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার মাধ্যমে তাদের কর্মক্ষমতা ও গুণমান বৃদ্ধি।
জনসংখ্যা সমস্যার সমাধান : অতিরিক্ত জনসংখ্যার দক্ষতা বাড়াতে গেলে অনেক সময় সম্পদেরও প্রয়োজন হয়। কিন্তু জনসংখ্যা কম হলে সীমিত সম্পদ দিয়েও তাদের দক্ষ করে তোলা সম্ভব হয়। বর্তমান জনসংখ্যা সমস্যা সমাধান করার জন্য প্রয়োজন শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা। আর তা করতে পারলে এ জনসংখ্যা জনসম্পদে পরিণত হবে।

ফাতেমা বেগম, সিনিয়র শিক্ষক
বর্ণমালা আদর্শ স্কুল ও কলেজ, ঢাকা।

সম্পাদক ও প্রকাশক : আহসান হাবীব
উপদেষ্টা সম্পাদক : মোশতাক আহমেদ রুহী

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: kholakagojnews7@gmail.com
            kholakagojadvt@gmail.com