যে কারণে ভিসি পদ ছাড়ছেন না

হামজা রহমান অন্তর / ৯:৪৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৮,২০১৯

শ্রদ্ধেয় শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল ভাইকে কেউ বুঝিয়ে বলুন, দুর্নীতি করতে সরকারি টাকার ছাড়পত্র পাওয়া লাগে না। ঠিকাদাররা কাজ পাওয়ার নিশ্চয়তার বদলে ব্যক্তিগত জায়গা থেকে নির্ধিধায় বিপুল অঙ্কের কমিশন দিয়ে দেয়। এটা এই উপমহাদেশের টেন্ডারবাজির তথাকথিত রেওয়াজ।

এত আন্দোলনের মুখেও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফারজানা ইসলাম উপাচার্য পদটি ছাড়ছেন না মূলত ঠিকাদারদের কাছ থেকে নেওয়া টাকা ফেরত দেবার ভয়ে। কারণ নতুন ভিসি যদি ই-টেন্ডারের মাধ্যমে রি-টেন্ডার দিয়ে ফেলেন, তাহলে তাকে ঘটিবাটি তল্পিতল্পাসহ বিক্রি করে এই টাকা শোধ করতে হবে। কারণ আন্দোলন দমাতে ইতিমধ্যে তিনি বিভিন্নভাবে বিভিন্নজনকে টাকার ভাগ দিয়েছেন।

তারা সবাই যদি টাকা ফেরত না দেয়, বর্তমান উপাচার্য সাবেক হয়ে গেলে নতুন উপাচার্য যদি রি-টেন্ডার দিয়ে দেন, কিভাবে ফারজানা ইসলাম ঠিকাদারকে টাকা ফেরত দেবেন? উপাচার্য পদ চলে গেলেও ঠিকাদারদের থেকে নেওয়া কমিশন ফেরত দিতে হবে না, এই নিশ্চয়তা কেউ উনাকে দেন, পদ আজ রাতেই ছাড়বেন, যা আমি শতভাগ নিশ্চিত হয়ে বলতে পারি।

প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা যেখানে দুর্নীতি রুখতে সারা দেশে ছোট ছোট প্রজেক্টগুলোতেও ই-টেন্ডারের ব্যবস্থা করেছেন, সেখানে জাবির দেড় হাজার কোটি টাকার উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা প্রজেক্টে দুর্নীতি করার পূর্ব-পরিকল্পপনা থেকেই উপাচার্য ই-টেন্ডারের বদলে ম্যানুয়াল টেন্ডার ডেকেছিলেন।

হামজা রহমান অন্তর
ছাত্রনেতা, জাবি

সম্পাদক : ড. কাজল রশীদ শাহীন
প্রকাশক : মো. আহসান হাবীব

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-১৮-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: editorkholakagoj@gmail.com
            kholakagojnews7@gmail.com