ধর্ষকের সঙ্গে থানায় বিয়ে

সম্পাদকীয়-১ / ১০:০৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১,২০১৯

আধুনিক সভ্যতার উৎকর্ষের এই যুগে নারী স্বাধীনতা এখনো অনেক ক্ষেত্রে আপেক্ষিক ধারণা। বিশেষ করে ধর্ষণের মতো নারীর প্রতি চরম অপমানজনক আচরণ আজও সমাজ থেকে দূরীভূত করা সম্ভব হয়নি। এর ফলে নারীর জন্য যেমন নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করা যাচ্ছে না, তেমনি সমাজেও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে না।

পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায়, মামলা না নিয়ে ‘ধর্ষণের শিকার’ গৃহবধূর সঙ্গে থানা চত্বরে ‘ধর্ষণকারীর’ বিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠার পর পাবনা থানার ওসির ব্যাখ্যা চেয়েছে কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে এ ঘটনায় মামলা নেওয়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। গঠন করা হয়েছে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটিও। গত সোমবার বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে পাবনার পুলিশ সুপার (এসপি) শেখ রফিকুল ইসলাম এসব তথ্য জানান। সূত্র মতে, গত শুক্রবার রাতে পাবনা সদর থানায় জোর করে এ দুজনের বিয়ে দেওয়া হয় বলে ওই নারী অভিযোগ করেন। আর যার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ, তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলেন, ‘রিমান্ডের ভয় দেখিয়ে’ পুলিশ তাদের বিয়ে দিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার বলেন, ‘পাবনা সদর থানার দাপুনিয়া ইউনিয়নে এক গৃহবধূকে দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা না নিয়ে ধর্ষণকারীর সঙ্গে বিয়ের ঘটনাটি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়েছে। এরপর পুলিশ ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) গৌতম কুমার বিশ্বাসকে প্রধান করে তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে। গত রোববার বিকালে তদন্ত কমিটির রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে তাৎক্ষণিকভাবে থানায় ধর্ষণ মামলা হিসেবে মামলাটি নথিভুক্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়। একই সঙ্গে সদর থানার ওসি ওবায়দুল হক থানা চত্বরে কেন এমন কাজ করলেন তার ব্যাখ্যা চেয়ে শোকজ নোটিস দেওয়া হয়েছে।’ এ ছাড়া বিষয়টি নিয়ে পুলিশ আরও অধিকতর তদন্ত করছে বলেও এসপি রফিকুল ইসলাম জানান।

ধর্ষণ বন্ধ করার জন্য ধর্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির কোনো বিকল্প নেই। একজন গৃহবধূকে দলবেঁধে ধর্ষণ করার পর ধর্ষকের সঙ্গেই বিয়ে দেওয়ার মতো ন্যক্কারজনক ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। এরকম অন্যায়ের পুনরাবৃত্তি রোধে যারা গৃহবধূ ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত ছিল, তাদের কঠোর শাস্তি প্রদানের মাধ্যমে একটি কার্যকর উদাহরণ তৈরি করার জন্য আমরা সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

সম্পাদক : ড. কাজল রশীদ শাহীন
প্রকাশক : মো. আহসান হাবীব

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-১৮-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: editorkholakagoj@gmail.com
            kholakagojnews7@gmail.com