চার জেলায় আক্রান্ত আরও ১৪১

ডেস্ক রিপোর্ট / ৯:৩২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫,২০১৯

ফরিদপুরে ডেঙ্গু পরিস্থিতি আগের তুলনায় কিছুটা উন্নতির দিকে রয়েছে। আগে যেখানে প্রতিদিন ৮০-৯০ জন করে রোগী ভর্তি হতো এখন সে সংখ্যা কিছুটা নিচে নেমে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫০ জন রোগী ভর্তি হয়েছে জেলার হাসপাতালগুলোতে। তবে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। যশোরে প্রতিদিনই ভর্তি হচ্ছে নতুন নতুন রোগী। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে আরও ৬০ জন রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এদিকে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫৩ জনে। সিরাজগঞ্জে আরও ২০ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫২৯ জনে।

ফরিদপুর সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ফরিদপুরের হাসপাতালগুলোতে ৩৫৯ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি হয়েছেন ৫০ জন ডেঙ্গু রোগী।

সিভিল সার্জন ডা. মোহা. এনামুল হক জানান, গত ২০ জুলাই থেকে এ পর্যন্ত ফরিদপুরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এক হাজার ৫৭৫ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি হয়েছেন ৫০ জন ডেঙ্গু রোগী। বর্তমানে ভর্তি আছেন ৩৫৯ জন। এছাড়া ৯৮৪ জন রোগী চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন, ২২৫ জনকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সরকারি হিসাবে শিশুসহ এ পর্যন্ত সাতজন ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

তবে অন্যত্র কমলেও যশোরে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। প্রতিদিনই ভর্তি হচ্ছেন নতুন নতুন রোগী। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে আরও ৬০ জন রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২২০ জন। এ পর্যন্ত জেলায় ৯৬৪ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে।

সিভিল সার্জন ডা. দিলীপ কুমার রায় জানিয়েছেন, যশোরের বিভিন্ন হাসপাতালে এ পর্যন্ত ৯৬৪ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭৪৪ জন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২২০ জন।

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্ববধায়ক ডা. আবুল কালাম আজাদ লিটু জানিয়েছেন, প্রতিদিনই ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। যে পরিমাণ রোগী চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন তার চেয়ে বেশি রোগী ভর্তি হচ্ছেন। তবে চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা ভালোভাবে চলছে। কোনো ধরনের সংকট নেই।

এদিকে, মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে গাংনী উপজেলায় ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৪ জনে। অপরদিকে জেলায় ১৫৩ জন।

অন্যদিকে, সিরাজগঞ্জে আরও ২০ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫২৯ জনে। এর মধ্যে গত ১৮ আগস্ট মেহেদী হাসান মীম নামে এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ১১ জন, নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুজন ও এনায়েতপুর খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সাত জন নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এসব হাসপাতালে সব মিলিয়ে ৫২ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সম্পাদক ও প্রকাশক : আহসান হাবীব
উপদেষ্টা সম্পাদক : মোশতাক আহমেদ রুহী

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: kholakagojnews7@gmail.com
            kholakagojadvt@gmail.com