শিডিউল বিপর্যয় : ৬ থেকে ১০ ঘণ্টা বিলম্বে ট্রেন

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১০:৩৩ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১০,২০১৯

ইট-পাথর আর কংক্রিটের শহর ছেড়ে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছে রাজধানীবাসী। ঈদের আনন্দ প্রিয়জনের সঙ্গে ভাগাভাগি করতে গিয়ে পড়তে হয়েছে নানা বিড়ম্বনায়। টিকিটপ্রাপ্তি থেকে শুরু করে বাড়ি পৌঁছানো পর্যন্ত নানা ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে ঘরে ফেরা মানুষদের। শিডিউল বিপর্যয়, যাত্রীর অতিরিক্ত চাপ, আসন না পাওয়ার ভোগান্তি মেনে নিয়েই ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে শেকড়ের টানে বাড়ি ফিরছে মানুষ।

শুক্রবার (৯ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্তে খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেসের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এতে বঙ্গবন্ধু সেতুতে ট্রেন চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ হওয়ায় ঘরে ফেরা মানুষ ঈদযাত্রায় চরম ভোগান্তিতে পড়ে। শুক্রবার বেলা পৌনে ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সাড়ে তিন ঘণ্টা পর উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেল চলাচল শুরু হয়। সেই প্রভাব ওই রুট ব্যবহার করা সব ট্রেনে পড়ে। যার ফলে প্রতিটি ট্রেনই বিলম্বে যাতায়াত করছে।

ঈদ যাত্রার চতুর্থ দিনে কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে শিডিউল বিপর্যয়ের কারণে পশ্চিমাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ ট্রেনগুলো দেরিতে ছাড়বে। এসব ট্রেনের কোনোটি ৬, কোনোটি ৮ এবং কোনোটি ১০ ঘণ্টা বিলম্বে ছেড়ে যাবে। এতে চরম ভোগান্তি আর সীমাহীন বিড়াম্বনায় পড়েছে ঘরমুখো মানুষ।

শনিবার (১০ আগস্ট) সকালে কমলাপুর রেলস্টেশনে রাখা ডিসপ্লেতে দেয়া ট্রেনের সময়সূচি অনুযায়ী, রাজশাহীগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি সাড়ে ৮ ঘণ্টা দেরিতে আনুমানিক বেলা ২টা ৩০ মিনিটে ছেড়ে যাবে। খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ৬ ঘণ্টা দেরিতে আনুমানিক দুপুর সাড়ে ১২টায় ছেড়ে যাবে।

চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ৮ ঘণ্টা দেরিতে আনুমানিক বিকেল ৪টায় এবং রংপুরগামী রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিলম্ব হবে উল্লেখ করা থাকলেও সম্ভব্য সময় জানানো হয়নি।

তবে রেলসূত্র জানায়, প্রায় ৮ ঘণ্টা দেরিতে আনুমানিক বিকেল ৫টায় ছেড়ে যেতে পারে রংপুর এক্সপ্রেস। তবে এ সময় পরিবর্তনও হতে পারে।

গত ১ আগস্ট যারা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট সংগ্রহ করেছিলেন তারাই আজ ট্রেনযোগে বাড়ি ফিরছেন। কিন্তু ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়ের কারণে এসব যাত্রীরা সীমাহীন বিড়াম্বনায় পড়েছেন।

রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রী সিদ্দিকুর রহমান বলেন, গত ১ আগস্ট ১৩ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে এসি সিট পেয়েছিলাম। আজ মা-স্ত্রী, সন্তান নিয়ে স্টেশনে এসে জানতে পারলাম সকাল ৯টার ট্রেন বিলম্ব হবে। তবে কত বিলম্ব হবে উল্লেখ করা নেই। শুনলাম ৮ ঘণ্টা বিলম্ব হয়ে বিকেল ৫টায় ছেড়ে যেতে পারে। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সকাল সকাল নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টেশনে এসেছি। এখন বাসায় ফিরে যেয়ে আবার স্টেশনে আসার কোনো উপায়ও নেই। এ অবস্থায় মনে হচ্ছে ঈদে বাড়ি যাওয়াই উচিত নয়।

ধূমকেতু এক্সপ্রেসের যাত্রী এমদাদুল হক জনি বলেন, ভোর ৬টার ট্রেন যাবে বেলা ২টা ৩০ মিনিটে। ঈদে বাড়ি যেতে এর চেয়ে দুর্ভাগ্যের কোনো বিষয় আছে? সাধারণ মানুষ ঈদে বাড়ি ফিরতে আর কত ভোগান্তি পোহাবে। ওই দিকে সড়ক পথে আমার বন্ধু ঢাকা থেকে ১০ ঘণ্টায় যমুনা সেতু পর্যন্তই পৌঁছাতে পারেনি। আমরা আসলে কোন দিকে যাবো। প্রতিবছর এমন বিড়াম্বনা ঈদের আনন্দই মাটি করে দেয়।

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার আমিনুল হক বলেন, গতকাল টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্তে ঢাকা থেকে খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এ কারণে দীর্ঘ সময় ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় সব ট্রেনের ওপর এর প্রভাব পড়েছে। যে কারণে ট্রেনের শিডিউল ঠিক নেই।

সম্পাদক ও প্রকাশক : আহসান হাবীব
উপদেষ্টা সম্পাদক : মোশতাক আহমেদ রুহী

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: kholakagojnews7@gmail.com
            kholakagojadvt@gmail.com