জমে উঠেছে পশুর হাট

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি / ৫:২৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৬,২০১৯

কোরবানির অল্প কয়েকদিন বাকি, আর তাই চাঁপাইনবাবগঞ্জের পশু হাটগুলোতে শুরু হয়েছে বেচা-বিক্রি। ক্রেতা-বিক্রেতাদের আনাগোনায় মুখর থাকছে জেলার ছোট-বড় সব হাট। এ বছর সীমান্ত পেরিয়ে ভারতীয় গরু না আসায়, হাটগুলোতে দেশী গরুর ভালো দাম পাচ্ছেন খামারি ও গৃহস্থরা। আর দেশী গরু ভালো দাম আগামীতে পশু পালনে আগ্রহ আরও বাড়াবে খামারি ও গৃহস্থের।

এ ধারাবাহিকতায় দেশীয় খামার গড়ে উঠলে গরুর জন্য ভারতের প্রতি নির্ভরশীলতা কমবে, বন্ধ হবে সীমান্তে অনাকাঙ্খিত প্রাণহানি। সীমান্তে যত প্রাণহানি ঘটনা ঘটেছে তার অধিকাংশই গরু আনা-নেওয়াকে কেন্দ্র করে। জেলার অন্যতম পশুর হাট বটতলা হাট ঘুরে দেখা যায়, হাটে আসা সবই দেশী গরু।

এ হাটে যারা গরু নিয়ে এসেছেন তাদের অধিকাংশই বাড়িতে গরু লালন-পালন করা গৃহস্থ। তারা বাড়িতে দুই-তিনটি গরু পালন করে কোরবানি ঈদে বিক্রি করে থাকেন। দুই-তিনটি করে বিভিন্ন গৃহস্থ বাড়ি থেকে আসা গরুতেই ভরে যাচ্ছে হাট। তারাই এবার কোরবানিতে পশুর বড় জোগানদাতা।

এমনই একজন চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোবিন্দপুর এলাকার আমিনুল ইসলাম, তিনি বাড়িতে লালন করা একটি গরু বিক্রি করতে নিয়ে এসেছেন। ৬৫ হাজার টাকা হলে গরুটি বিক্রি করবেন বলে জানান।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আনন্দ কুমার জানান, এবছর কোরবানির জন্য এক লাখ ৬৭ হাজার গবাদি পশু লালন পালন করেছেন স্থানীয় খামারি ও গৃরস্থরা। এই বাইরে কিছু পরিবার আছে যারা নিজেরা নিজেদের পালন করা পশু কোরবানি দিয়ে থাকেন, সেই সংখ্যাটা নেহাত কম নয়।

সম্পাদক : ড. কাজল রশীদ শাহীন
প্রকাশক : মো. আহসান হাবীব

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-১৮-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: editorkholakagoj@gmail.com
            kholakagojnews7@gmail.com