আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে যা বললেন পরীমণি

বিনোদন ডেস্ক / ৩:২২ অপরাহ্ণ, মে ২০,২০২২

ভাষা আন্দোলন নিয়ে কালজয়ী গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’র রচয়িতা বিশিষ্ট সাংবাদিক, গীতিকার, কলামিস্ট ও সাহিত্যিক আবদুল গাফফার চৌধুরী মারা গেছেন। গত বৃহস্পতিবার (১৯ মে) স্থানীয় সময় আনুমানিক সকাল ৭টায় যুক্তরাজ্যের লন্ডনে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

তার মৃত্যুতে অনেকের মতো শোকাচ্ছন্ন হয়ে আছেন চিত্রনায়িকা পরীমণি। কেননা পরীর দুঃসময়ে সুদূর যুক্তরাজ্য থেকেই পাশে ছিলেন কিংবদন্তি এই লেখক। নিয়মিত সাহস যুগিয়েছেন নায়িকাকে।

গত বছর মাদক মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছিলেন পরীমণি। সে সময় তার মুক্তির দাবিতে সোচ্চার ছিলেন আবদুল গাফফার চৌধুরী। গণমাধ্যমে পরীকে নিয়ে কলাম লিখেছিলেন। এমনকি পরীমণিকে নিয়ে তিনি রচনা করেছিলেন একটি বিশেষ কবিতাও।

সেই কবিতা শেয়ার দিয়েই আবদুল গাফফার চৌধুরীকে স্মরণ করলেন পরীমণি। ফেসবুকে এই নায়িকা লিখেছেন, ‘আমি পেয়েছিলাম ঐ দুর্লভরে। মিলিবে কী আর...!

এদিকে পরীমণির ঘনিষ্ঠজন, নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী এক স্ট্যাটাসে আবদুল গাফফার চৌধুরীকে নিয়ে বেশ কিছু তথ্য জানিয়েছেন। লিখেছেন, ‘অনেকক্ষণ ভাবছিলাম খবর শোনার পর থেকে। অনেক কিছু চোখে ভেসে উঠছিল বারবার। আপনার চেহারা, কানে বাজছিল আপনার স্নেহমাখা কথা, আপনার লেখা আমাকে অজস্র টেক্সট। আগষ্ট এর ৫, ২০২১ সাল থেকেই আপনি আমাকে খুঁজেছেন। অজস্রবার। বুঝেছিলাম পরিমণির জন্য। কিন্ত এটাও সত্যি আমার খারাপ সময়ে এমন কোনদিন নেই আপনি আমাকে ফোন করে খবর নেন নাই। টানা ৪ মাস আপনি প্রায় প্রতিদিন খোঁজ নিয়েছেন আমার হোয়াটসঅ্যাপে।’

চয়নিকা আরও লিখেছেন, ‘আপনি আমাদের সাহস দিতেন সবসময়। সত্যি কান্না পাচ্ছে। কথা ছিল, আপনি আসবেন, দেখা হবে। অসুস্থতার ভেতরেও কল করেছিলেন আপনি। আহা!’

সম্পাদক ও প্রকাশক : আহসান হাবীব

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : বসতি হরাইজন, ১৭-বি, বাড়ি-২১, সড়ক-১৭, বনানী, ঢাকা
ফোন : বার্তা-৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৭, মফস্বল-৯৮২২০৩৬
বিজ্ঞাপন-৯৮২২০২১, ০১৭৮৭ ৬৯৭ ৮২৩,
সার্কুলেশন-৯৮২২০২৯, ০১৮৫৩ ৩২৮ ৫১০
Email: kholakagojnews7@gmail.com
            kholakagojadvt@gmail.com