মইনুল রাজনৈতিক চরিত্রহীন: তোফায়েল

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮ | ২৯ কার্তিক ১৪২৫

মইনুল রাজনৈতিক চরিত্রহীন: তোফায়েল

ভোলা প্রতিনিধি ৭:৪৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৮

print
মইনুল রাজনৈতিক চরিত্রহীন: তোফায়েল

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মইনুল হোসেনকে একজন রাজনৈতিক চরিত্রহীন বলেছেন প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

রোববার দুপুরে ভোলা সদর উপজেলার বাপ্তা ইউনিয়নে নির্বাচনী কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

৭১ টেলিভিশনের টক-শোতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে নিয়ে মইনুল হোসেনের উক্তির নিন্দা জানিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মাসুদা ভাট্টি একজন সৎ ও প্রখ্যাত সাংবাদিক। তাকে নিয়ে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন যে উক্তি করেছেন তা দুঃখজনক।’
তোফায়েল বলেন, ‘তিনি (মইনুল) নিজেই রাজনৈতিকভাবে চরিত্রহীন। তিনি বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী খন্দকার মোশতাকের দলের একজন নেতা হয়েছিলেন। তিনি জামায়াতে ইসলামীর অঙ্গসংগঠন ছাত্রশিবিরের এক অনুষ্ঠানে শিবিরের গুণকীর্তন করেছেন। এখন আবার ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাকারী ও হত্যাকারীদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন।’

মইনুল হোসেনের বক্তব্যের বিরুদ্ধে সারা দেশের নারীসমাজ ঘৃণা পোষণ করেছে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের ৫৫ জন সম্পাদক ও জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক মইনুল হোসেনকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

গত ১৬ অক্টোবর বেসরকারি টেলিভিশন একাত্তরের এক অনুষ্ঠানে লাইভে এসে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির এক প্রশ্নে উত্তেজিত হয়ে তাকে ‘চরিত্রহীন’ বলে মইনুল।

এর প্রতিক্রিয়ায় মাসুদা এবং জামালপুরে যুব মহিলা লীগের একজন নেত্রী মইনুলের বিরুদ্ধে ২০ হাজার কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন। দুটি মামলাতেই জারি হয় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা। আর পরে হাইকোর্টে আবেদন করে দুটি মামলাতেই পাঁচ মাসের আগাম জামিন পান মইনুল।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে বলতে গিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বিএনপিকে ‘দৈন্যে ভোগা’ দল বলেও মন্তব্য করেন। বলেন, ‘বিএনপির মধ্যে কোনো কোনো লোক নেই বলেই তারা কামাল হোসেনের মতো একজন দলত্যাগী নেতাকে আজ বেছে নিয়েছে।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট যে সাত দফা দাবি দিয়েছে, তার সব কটি সংবিধান-পরিপন্থী এবং কোনোটাই গ্রহণযোগ্য নয় বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের এই বর্ষীয়ান নেতা।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে আনোয়ারা তোফায়েল, ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, ভোলা সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি হামিদুল হক বাহালুল, যুগ্ম সম্পাদক জহিরুল ইসলাম নকীব, এনামুল হক আরজু, সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।