খালেদা জিয়াকে ঘিরে সরব নেতৃবৃন্দ

ঢাকা, বুধবার, ১ ডিসেম্বর ২০২১ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

খালেদা জিয়াকে ঘিরে সরব নেতৃবৃন্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক
🕐 ১১:১০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২১

খালেদা জিয়াকে ঘিরে সরব নেতৃবৃন্দ

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসা ঘিরে ফের সরব বিএনপির নেতৃবৃন্দ। কয়েকদিন ধরে চলছে দফায় দফায় সভা-সমাবেশ। বিএনপির আইনজীবীরা আইনমন্ত্রীকে স্মারকলিপিও দিয়েছেন। আইনমন্ত্রী তাদের কাছে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দিতে সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন। এদিকে গতকাল বুধবার খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে ৮ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি এবং দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনগুলো।

এদিকে অসুস্থ খালেদা জিয়াকে নিয়ে একটি মহল গুজব ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আর দলটির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় সরকার অহেতুক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। এই প্রতিবন্ধকতা যদি খালেদা জিয়ার জীবনের জন্য হুমকি বা বিপন্ন হয়, তাহলে দেশে রেড অ্যালার্ট জারি করেও সরকারের পতন ঠেকানো যাবে না।

৮ দিনের কর্মসূচি : হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে ৮ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি এবং দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনগুলো। গতকাল বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কর্মসূচির কথা জানান দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এর আগে দলটির যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকদের নিয়ে যৌথ সভা করেন মির্জা ফখরুল।

মির্জা ফখরুল জানান, বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবং সম্পাদকম-লীর নেতাদের সঙ্গে যৌথ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে এসব কর্মসূচি পালন করা হবে।

কর্মসূচিগুলোর মধ্যে রয়েছে-
২৫ নভেম্বর সারা দেশে যুবদলের বিক্ষোভ সমাবেশ। ঢাকায় এই বিক্ষোভ সমাবেশ হবে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে। ২৬ নভেম্বর শুক্রবার জুমার নামাজের পর মসজিদে মসজিদে খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তির জন্য দোয়া মাহফিল। একইভাবে মন্দির-প্যাগোডায় বিশেষ প্রার্থনা। ২৮ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে সারা দেশে বিক্ষোভ সমাবেশ। ঢাকায় এই বিক্ষোভ সমাবেশ হবে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে। ৩০ নভেম্বর বিএনপির উদ্যোগে বিভাগীয় শহরগুলোতে সমাবেশ। ১ ডিসেম্বর ছাত্রদলের উদ্যোগে সারা দেশে বিক্ষোভ সমাবেশ। ২ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন। ৩ ডিসেম্বর কৃষক দলের উদ্যোগে ঢাকাসহ সারা দেশে বিক্ষোভ সমাবেশ। ৪ ডিসেম্বর মহিলা দলের উদ্যোগে মৌন মিছিল।

‘খালেদা জিয়াকে নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে’ : অসুস্থ খালেদা জিয়াকে নিয়ে একটি মহল গুজব ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল বুধবার দুপুরে ঢাকার নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় এক সংবাদ সম্মেলনে দলীয় চেয়ারপারসনের শারীরিক অবস্থা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি এই অভিযোগ করেন। ফখরুল বলেন, ‘এ গুজবগুলো.. কালকে আপনাদেরকে বলছি, এর কোনো ভিত্তি নাই। আজকে এখনও কিছু গুজব ছড়াচ্ছে। আমার মনে হয় যে এটা অত্যন্ত কৌশলে কোনো মহল এই গুজবগুলো ছড়াচ্ছে অসৎ উদ্দেশ্যে।’ কারা এই গুজব ছড়াচ্ছে, তা স্পষ্ট করেননি তিনি। ‘ম্যাডামের বিষয়ে আপনারা সরাসরি আমাকে ফোন করবেন, আমি আপনাদেরকে জানাব,’ বলেন বিএনপি মহাসচিব।

গত মঙ্গলবার রাত থেকে সোশাল মিডিয়ায় বসুন্ধরার এভারকেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে নানারকম ‘বিভ্রান্তিকর’ তথ্য প্রচার হয়। এতে সারাদেশের নেতা-কর্মীরা ঢাকায় বিভিন্ন পরিচিতজনের কাছে টেলিফোন করে খোঁজ-খবর নিচ্ছিলেন। বিএনপি চেয়ারপারসন সর্বশেষ অবস্থা কেমন- জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, ‘এখনও তিনি ওই অবস্থাতেই আছেন। স্টিল ইজ ভেরি ক্রিটিক্যাল। ডাক্তার সাহেবরা মনিটর করছেন, তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তাদের পক্ষে যেটা সম্ভব, সেটা সর্বাত্মক প্রচেষ্টা তারা করছে।’

সারাদেশে ‘রেড এলার্ট’ জারির গুঞ্জন নিয়েও ফখরুল বলেন, ‘এগুলো কোথায় পান আপনারা? রেড এলার্ট কোথায় পেলেন আপনারা? হোয়ার? এখানে সরকার কি কোনো বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে? আমি দেখিনি।’

দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ড নিয়ে কারাগারে যাওয়া খালেদা জিয়া সরকারি আদেশে মুক্ত থাকার মধ্যে এখন অসুস্থ হয়ে ঢাকার বসুন্ধরা এভারকেয়ার হাসপাতালে রয়েছেন। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ নিতে চায় সরকার। কিন্তু সরকারের সায় এখনও পায়নি।
‘খালেদা জিয়ার জীবন বিপন্ন হলে সরকারের পতন ঠেকানো যাবে না’

বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় সরকার অহেতুক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। এই প্রতিবন্ধকতা যদি খালেদা জিয়ার জীবনের জন্য হুমকি বা বিপন্ন হয়, তাহলে দেশে রেড অ্যালার্ট জারি করেও সরকারের পতন ঠেকানো যাবে না।

গতকাল বুধবার দুপুরে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে জামালপুর জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করতে এসে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সকে সঙ্গে নিয়ে জেলা বিএনপির প্রতিনিধিদল স্মারকলিপি জেলা প্রশাসক মুর্শেদা বেগমের হাতে তুলে দেন।

জামালপুর জেলা বিএনপির উদ্যোগে এই স্মারকলিপি প্রদানের আয়োজন করা হয়। দুপুরে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. ওয়ারেছ আলীর নেতৃত্বে দলীয় নেতা-কর্মীরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গণে উপস্থিত হন। পরে কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিনিধিদল স্মারকলিপিটি জেলা প্রশাসক মুর্শেদা বেগমের হাতে তুলে দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন, জেলা বিএনপির সহসভাপতি গোলাম নবী, জেলা বিএনপির সহসভাপতি মঞ্জুরুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হক খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আহসানুজ্জামান রুমেল, সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সজীব খান ও শহর বিএনপির আহ্বায়ক লিয়াকত আলী প্রমুখ।

 

 

 

 

 

 
Electronic Paper