আদালতে খালেদার মেডিকেল রিপোর্ট, সন্দেহ ফখরুলের

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০ | ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭

আদালতে খালেদার মেডিকেল রিপোর্ট, সন্দেহ ফখরুলের

নিজস্ব প্রতিবেদক ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

print
আদালতে খালেদার মেডিকেল রিপোর্ট, সন্দেহ ফখরুলের

সুপ্রিম কোর্টে পৌঁছেছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যবিষয়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষের প্রতিবেদন। গতকাল বুধবার বিকালে প্রতিবেদনটি পৌঁছায়। তবে এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এই প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই আজ সুপ্রিম কোর্টে খালেদার জামিন আবেদনের বিষয়ে আদালতের আদেশ দেওয়ার কথা রয়েছে। তবে আদালতে খালেদার প্রকৃত স্বাস্থ্য প্রতিবেদনের বদলে অন্য প্রতিবেদন উপস্থাপনের চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ আদেশ ঘিরে আদালত সংলগ্ন এলাকায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে পুলিশ। তবে গতকাল সুপ্রিম কোর্টের সামনের সড়কে তিনটি মোটর সাইকেল জ্বালিয়ে দিয়েছে দুর্বত্তরা।

বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক কনক কান্তি বড়ুয়া গতকাল দুপুর ২টায় এ বিষয়ে জানান, খালেদার চিকিৎসায় গঠিত অধ্যাপক জিলন মিঞা সরকারের নেতৃত্বে সাত সদস্যের মেডিকেল বোর্ড এই প্রতিবেদন দিয়েছে।

জানা গেছে, আদালত থেকে ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন পাঠানোর নির্দেশনা ছিল।

আজ খালেদার জামিন বিষয়ে আদেশ দেওয়ার কথা রয়েছে। সর্বোচ্চ আদালতের আশপাশ এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সরেজমিনে দেখা যায়, গতকাল সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্টের প্রতিটি প্রবেশপথ, আশপাশ ও আদালত চত্বরের অভ্যন্তরের বিভিন্ন স্থানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশির পর আইনজীবী, বিচারপ্রার্থী, সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্টদের আদালত চত্বরে প্রবেশ করানো হচ্ছে।

তবে গতকাল সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন দিয়েছে দুর্বত্তরা।

শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান বলেন, একই সময়ে তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়া নাশকতা বলেই মনে হচ্ছে। এ ঘটনায় এখনো কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।

আগুন দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় সন্দেহভাজন একজনকে আটক করা হয়েছে। তাকে শাহবাগ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের প্রকৃত রিপোর্ট সরিয়ে অন্য আরেকটি রিপোর্ট দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘যতটুকু জানি, খালেদা জিয়ার যে মেডিকেল রিপোর্ট দেওয়ার কথা ছিল সেটি এখন পর্যন্ত আসেনি। আমরা যতদূর জানতে পেরেছি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যে যে রিপোর্ট দিয়েছিলেন, সেটিকে সরিয়ে দিয়ে অন্য কোনো রিপোর্ট দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।’

গতকাল বুধবার রাজধানীতে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে বিএনপির গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ