উত্তরে ব্যস্ত তাবিথ, দক্ষিণে ইশরাক

ঢাকা, রবিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২০ | ১৩ মাঘ ১৪২৬

উত্তরে ব্যস্ত তাবিথ, দক্ষিণে ইশরাক

ঢাকা সিটি নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদক ৯:১৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯

print
উত্তরে ব্যস্ত তাবিথ, দক্ষিণে ইশরাক

ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচন আয়োজনে প্রস্তুতি শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগামী জানুয়ারিতেই গুরুত্বপূর্ণ এ দুই সিটির নির্বাচন সারতে চায় ইসি। বড় দলগুলোর প্রেস্টিজের এ নির্বাচনে বসে নেই সম্ভাব্য প্রার্থীরাও। এখন পর্যন্ত কোনো দলই তাদের প্রার্থীর বিষয়টি পরিষ্কার করেনি। তবে ভেতরে ভেতরে মাঠ গোছাতে ব্যস্ত দলগুলোর মনোনয়নপ্রত্যাশীরা।

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের দুই মেয়র আবারও সুযোগ চাইছেন। আর বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীরাও দল থেকে ইঙ্গিত পেয়ে মাঠে নেমেছেন। যে যার মতো করে নানা মাধ্যমে নিজের অবস্থান তৈরিতে কাজ করছেন। মেয়র পদে বিএনপির একাধিক আগ্রহী প্রার্থী থাকলেও দক্ষিণে সাদেক হোসেন খোকার পুত্র প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন ও উত্তরে আব্দুল আউয়াল মিন্টুপুত্র তাবিথ আউয়াল সক্রিয়ভাবে মাঠে নেমেছেন।

সম্প্রতি বাবা হারানোর কারণে কিছুটা শোকের মধ্যে আছেন ইশরাক। তবে নিয়মিত নেতাকর্মী ও সমর্থকদের কাছে ছুটছেন গত নির্বাচনের মেয়র প্রার্থী তাবিথ।

গত ৩০ ডিসেম্বরের ভোটের পর নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বর্তমান কমিশনের অধীনে আর কোনো নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল বিএনপি। যদিও পরে সেই অবস্থান থেকে সরে আসে দলটি। এরই মধ্যে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আভাসও মিলেছে দলটির শীর্ষ নেতাদের বক্তব্যে।

বিএনপির সিনিয়র নেতা এবং সম্ভাব্য প্রার্থীরা মনে করছেন, সিটি নির্বাচন নিয়ে এখনো অনিশ্চয়তা রয়েছে। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে আপত্তি না থাকলেও বর্তমান ইভিএম ব্যবস্থা নিয়ে তাদের আপত্তি আছে।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা মতে, ডিসেম্বরের শেষে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির তফসিল ঘোষণা করা হবে। জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে মধ্যেই ভোটগ্রহণ হবে। এ নির্বাচনে বিদ্যমান ভোটার তালিকাই ব্যবহার করা হবে। দুই সিটিতেই ইভিএম ব্যবহার করা হবে। তবে কমিশনের ওই সভায় ভোটের সময়সূচি ঠিক করা হয়নি।

২০১৫ সালে ঢাকা সিটির নির্বাচনে উত্তরে আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের প্রার্থী ছিলেন তাবিথ আউয়াল। আনিসুল হকের সঙ্গে নির্বাচনে লড়ে তিনি পেয়েছিলেন ৩ লাখ ২৫ হাজার ৮০ ভোট।