‘পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন’

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯ | ১০ আষাঢ় ১৪২৬

‘পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন’

নিজস্ব প্রতিবেদক ৪:৫৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৩, ২০১৯

print
‘পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন’

বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া এ দেশকে গণতন্ত্রের স্বাদ পাইয়েছেন। যিনি পাকিস্তান আমল থেকে নির্যাতনের শিকার হয়েও অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেনি। যাকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন। আমি তার মুক্তি চাই, নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দল আয়োজিত সংগঠনটির ১২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আলোচনা সভায় তিনি এসব বলেন।

কৃষকদলের এই আহ্বায়ক বলেন, শেষ কথাটা হলো এই বাংলাদেশ গড়েছে জিয়াউর রহমান, তিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন লড়াই করেছেন। বেগম জিয়া তার দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে জেল খেটেছেন পাকিস্তানের টাকায় তার সংসার চলে নাই অথচ কেউ কেউ পাকিস্তানের গাড়িতে করে হাসপাতালে গিয়েছে, পাকিস্তানের অর্থায়নে কেউ কেউ চলেছে তারপরও বিএনপি ঠিকই আছে।

দুদু বলেন, বিএনপি গণতন্ত্রকে মুক্ত করবে, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে, তারেক রহমানকে দেশে আনবেই। কীভাবে আনবে? অসংখ্য উদাহরণ আছে সেই উদাহরণ যখন বাস্তবায়ন হওয়া শুরু করবে তখন হাসিনাকে বলছি না, পালানোর জন্য আমরা তাকে মারধরের কথা বলছি না, তার সংগঠনকে উচ্ছেদ করবে সেটা বলছি না, তবে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করবে বিএনপি সে আইনকে মোকাবেলা করতে হবে তাদের।

দুদু আরও বলেন, ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ বারবার অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসে বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর সীমাহীন নির্যাতন করছে। এত নির্যাতন বাংলাদেশে কেন, সারা বিশ্বের কোনো রাষ্ট্রে কোনো রাজনৈতিক দলের ওপরে হয় নাই।

তিনি বলেন, তিনবারের নির্বাচিত সাবেক প্রধানমন্ত্রীর নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে আটকে রাখা হয়েছে। প্রায় এক লাখ মামলা ২৬ হাজার নেতাকর্মীর নামে। তারপরও বিএনপি উঠে দাঁড়াচ্ছে।

ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, হতাশা যখন ঘিরে ধরে তখন তার মৃত্যু হয়। যখন সামনের স্বপ্নগুলো ধ্বংস হয়ে যায় তখন স্বপ্নগুলোকে বাস্তব রূপ নেয় না। মিথ্যা করে দেয় এটা ফ্যাসিবাদের কাজ আর এটাই শেখ হাসিনা সফলভাবে করেছে।

আয়োজক সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সালাউদ্দীন খানের সভাপতিত্বে এবং প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মো. আলতাফ হোসেন সরদারের সঞ্চালনায়

আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এ বি এম মোশাররফ হোসেন, কৃষকদলের সদস্য মাইনুল ইসলাম, মিয়া মো. আনোয়ার, কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।