‘বাংলাদেশ বর্তমানে জুলুমের রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে’

ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯ | ৬ বৈশাখ ১৪২৬

‘বাংলাদেশ বর্তমানে জুলুমের রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক ৭:১৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১২, ২০১৯

print
‘বাংলাদেশ বর্তমানে জুলুমের রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে’

বর্তমানে আইনের শাসন নেই বলেই দেশব্যাপী এক ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি বিদ্যমান। প্রতিদিন নানা দুর্ঘটনায় মানুষের প্রাণহানির পাশাপাশি নারী ও শিশু নির্যাতন এখন মহামারি আকার ধারণ করেছে বলে দাবি করেছেন, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। সুষ্ঠু বিচারব্যবস্থার অভাব এবং অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়ার কারণে বাংলাদেশ নামক স্বাধীন রাষ্ট্রটি বর্তমানে এক জুলুমের রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে বলেও জানান তিনি।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির তাঁতীবিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন ইসলাম খান। সভায় নবগঠিত কমিটির নেতৃবৃন্দকে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

নবগঠিত জাতীয়তাবাদী তাঁতী দল কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির সাফল্য কামনা করে রিজভী বলেন, ‘আমি আশা করি- জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের নবগঠিত কমিটির নেতৃবৃন্দ সংগঠনটিকে গতিশীল ও সুসংগঠিত করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাবে। এ ছাড়া মিডনাইট স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকারের কবল থেকে হারানো গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়সহ নির্দোষ বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে সব আন্দোলন সংগ্রামে জাতীয়তাবাদী তাঁতী দল বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করবে বলে আমি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করছি।’

রিজভী বলেন, ‘মানবতা ও মানবিক মূল্যবোধের অভাবে এবং সরকার নিজ স্বার্থে রাষ্ট্রযন্ত্রকে যথেচ্ছ ব্যবহারের ফলে দেশের মানুষ সর্বদা এক অজানা আশঙ্কায় আতঙ্কিত জীবন অতিবাহিত করছে। দেশের মানুষ এখন পুরোপুরি নিরাপত্তাহীন। সারাদেশ যেন এক মৃত্যুউপত্যকায় রূপান্তরিত হয়েছে। বর্তমান স্বৈরাচারী সরকারের নিষ্ঠুর শাসন থেকে মুক্তি পেতে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আগামীতে বিএনপি ঘোষিত সব আন্দোলন-সংগ্রামে দলমত নির্বিশেষে সবার ঝাঁপিয়ে পড়ার কোনো বিকল্প নেই।

এ ক্ষেত্রে জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের নেতাকর্মীরাও বীরদর্পে লড়াই চালিয়ে যেতে পিছপা হবে না। আমি জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি।’