বোরহানউদ্দিনে চার প্রাণ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

বোরহানউদ্দিনে চার প্রাণ

বিবিধ ডেস্ক ১২:০৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

print
বোরহানউদ্দিনে চার প্রাণ

বাংলাদেশে গত আট বছরে কয়েকটি সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, প্রায় একই ধরনের কৌশল ব্যবহার করে এসব হামলার পটভূমি তৈরি করা হয়েছে। তা হলো, ফেসবুকে মহানবী (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তি। এই ধারার সর্বশেষ গুজব এবং তার কারণে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে ভোলায়।

জনতার বিক্ষোভ সমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে চারজন নিহত ও ১০ পুলিশসহ দেড় শতাধিক আহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন ৯ জন। এ ঘটনায় আহত শতাধিক লোককে বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে এবং ৪০ জনকে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গুরুতর আহত ১০-১৫ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানে হয়।

জানা যায়, বিপ্লব চন্দ্র শুভ নামে এক ব্যক্তির নাম ও ছবি সংবলিত ফেসবুক আইডি থেকে আল্লাহ ও নবী করিম (সা.) কে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ গালাগাল করা হয়। একপর্যায় কয়েকটি আইডি থেকে ম্যাসেজগুলোর স্ক্রিনশর্ট নিয়ে ফেসবুকে কয়েকজন প্রতিবাদ জানালে বিষয়টি সবার নজরে আসে। এমনকি বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। এ অবস্থায় সন্ধ্যার পর বিপ্লব চন্দ্র বোরহানউদ্দিন থানায় আইডি হ্যাক হয়েছে মর্মে জিডি করতে এলে থানা পুলিশ বিষয়টি তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিপ্লব চন্দ্রকে তাদের হেফাজতে রাখেন।

এর মধ্যে এবারই প্রথম পুলিশ শুরুতেই জানিয়েছে, তারা এটি উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছে যে ভোলার বোরহানউদ্দিনে একজন হিন্দু ব্যক্তির বিরুদ্ধে মুসলমানদের নবী মোহাম্মদকে অবমাননার অভিযোগ তোলা হলেও এটি করেছেন আসলে অন্য দুজন। ওই হিন্দু ব্যক্তি আগেই তার আইডি হ্যাকের কথা পুলিশকে জানিয়েছিলেন।