মাদকের ভয়ঙ্কর ছোবল থেকে বাঁচুন

ঢাকা, বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮ | ৯ কার্তিক ১৪২৫

মাদকের ভয়ঙ্কর ছোবল থেকে বাঁচুন

মকবুল হামিদ ৯:৩৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১২, ২০১৮

print
মাদকের ভয়ঙ্কর ছোবল থেকে বাঁচুন

মাদক এক প্রকার রাসায়নিক দ্রব্য যা গ্রহণে মানুষের স্বাভাবিক ও মানসিক অবস্থার ওপর ব্যাপকভাবে প্রভাব পড়ে এবং যা আসক্তি সৃষ্টি করে। আজকাল মাদকের ব্যবহার বেশিরভাগ যুবসমাজে দেখা যাচ্ছে। যুবকরা দিনের পর দিন মাদকাসক্তিতে আসক্ত হয়ে যাচ্ছে।

আমাদের দেশে বিভিন্ন ধরনের মাদক দেখতে পাওয়া যায়, যেগুলো বিষাক্ত সাপের ছোবলের মতো মানুষের দেহকে ছোবল মারে।
বিভিন্ন ধরনের মাদকগুলোর মধ্যে- হেরোইন, কোকেন, ইয়াবা, আফিম, গাঁজা, ফেনসিডিল, বিয়ার, কেটামিন, তামাক, বিড়ি, সিগারেট, স্পিড, ঘুমের বড়ি, তুসকা ইত্যাদি। এসব মাদকদ্রব্য আমাদের সমাজে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে। আমাদের দেশের যুবসমাজ বিভিন্ন কারণে মাদক সেবন করে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। মাদকের সহজলভ্যতা, অসৎ সঙ্গ, মা-বাবার বেপরোয়া আচরণবিধি, ভালোবাসার সম্পর্ক নষ্ট হওয়া, স্মার্ট হওয়ার জন্য, পারিবারিক কলহসহ ইত্যাদি কারণে হতাশ যুবকরা মাদক সেবন করে। নিওরো কেমিক্যাল পরীক্ষায় দেখা গেছে, মাদক সেবনের পরপরই ব্যক্তির মস্তিষ্কের কিছু কিছু জায়গায় অতিদ্রুত এবং বেশি পরিমাণে ডোপামিননামক নিওরোট্রান্সমিটার বৃদ্ধি পায়, যা একজন ব্যক্তিকে মাদকের আনন্দ দেয় এবং পরবর্তী সময়ে ব্যবহারে উৎসাহিত করে। কিন্তু যারা দীর্ঘদিন ধরে মাদকে আসক্ত তাদের বেলায় আবার উল্টোটা দেখা যায়। অর্থাৎ দীর্ঘদিন মাদক নেওয়ার ফলে যে ডোপামিন একজন মানুষকে নেশার আনন্দ দিত তা আস্তে আস্তে কার্যকারিতা হারিয়ে ফেলে। প্রতিটি পিতামাতার উচিত তাদের সন্তানদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনার্থে সন্তানদের মাদক থেকে দূরে সরিয়ে রাখা।
তাদের সঠিকভাবে দেখাশোনা করা, তাদের প্রতি যত্ন নেওয়া। মাদকবিরোধী
অভিযানসহ আইন প্রণয়ন করা সত্ত্বেও দেশের ভেতর কেমন করে মাদকের ব্যবসার জমজমাট আসর বসে? তাই আমাদের প্রত্যেকের উচিত মাদক নিয়ন্ত্রণে সরকারকে সহযোগিতা করা যাতে দেশ থেকে মাদক বিলুপ্ত হয়।


চাঁদপুর সরকারি কলেজ

 
.