ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে বিদ্যুতের ভূমিকা

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ | ৭ কার্তিক ১৪২৫

ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে বিদ্যুতের ভূমিকা

আজিনুর রহমান লিমন ৯:৩০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৮, ২০১৮

print
ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে বিদ্যুতের ভূমিকা

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে নেপথ্যের কারিগর হলো বিদ্যুৎ। একটি ঘরের মধ্যে আলো না থাকলে অন্ধকারে যেমন কোনো কিছু খুঁজে পাওয়া যায় না তেমনি একটি দেশে বিদ্যুৎ না থাকলে সে দেশের অস্তিত্বও খুঁজে পাওয়া যায় না। এ জন্য ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে বিদ্যুতের গুরুত্ব অপরিসীম।

প্রযুক্তির সাম্রাজ্যে বিশ্ব এখন উদ্ভাসিত। যে প্রযুক্তি পৃথিবীকে বদলে দিয়েছে। যার ফলে পুরো বিশ্ব এখন হাতের মুঠোয়। বিশ্বকে হাতের মুঠোয় এনে দেওয়ার প্রধান হাতিয়ার বিদ্যুৎ। বিদ্যুৎবিহীন প্রযুক্তির উন্নয়ন কখনই সম্ভব নয়। যেখানে বিদ্যুতের ছোঁয়া লেগেছে সেখানেই প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়ে গেছে। বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত এলাকাগুলো প্রযুক্তির ছোঁয়ায় পরিবর্তন হয়েছে। এখন গ্রামের মানুষকে আর শহরে যেতে হয় না, কিংবা মাইলের পর মাইল হাঁটতে হয় না। হাতে একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল থাকলেই যথেষ্ট। প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ফলে দেশের প্রতিটি ঘর ডিজিটালে পরিণত হবে। যে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে যাচ্ছে, সঙ্গে সঙ্গে সেই ঘর ডিজিটালে পরিণত হচ্ছে। বিদ্যুৎ আমাদের আলো দিচ্ছে। যে আলোয় অন্ধকার দূর করছে। বিদ্যুৎ আমাদের বাতাস দিচ্ছে। যে বাতাসে আমাদের শরীর প্রশান্তি পাচ্ছে। বিদ্যুৎ আমাদের নিত্যদিনের খাবারকে তরতাজা রাখছে। যে খাবার আমারা প্রশান্তিতে ভোগ করছি। এ ছাড়াও বিদ্যুৎ আমাদের বিনোদন উপভোগ করার সুযোগ দিচ্ছে। প্রযুক্তির এই বিচরণ প্রবীণদের অবাক করছে। আর বর্তমান প্রজন্মকে করছে ডিজিটাল। এই বিদ্যুৎ অসম্ভবকে সম্ভবে পরিণত করছে। তাই আসুন দেশকে এগিয়ে নেওয়ার অন্যতম হাতিয়ার বিদ্যুৎকে আমরা অপচয় করব না। বিদ্যুৎ ব্যবহারে নিজে সচেতন হব, অন্যদেরও সচেতন করব।


ডিমলা, নীলফামারী।

 
.