মানসিক রোগীদের অবহেলা নয়

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

মানসিক রোগীদের অবহেলা নয়

আকলিমা আক্তার সোমা ৭:৫১ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০২০

print
মানসিক রোগীদের অবহেলা নয়

আমাদের দেশে অসুস্থতা মানে শারীরিক অসুস্থতা, মানসিক অসুস্থতাকে আমরা অসুস্থতা বলে মনে করি না। মনে করি ন্যাকামি, আদ্যিখেতা, সুখে থাকতে ভূতে কিলানো। মারাত্মক পর্যায়ে গেলে তাকে পাগল আখ্যা দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলি। অসুখ কিন্তু বিভিন্ন রকম হয়। মানসিক সমস্যা মানেই একটা মানুষ পাগল নয়। মানুষের উদ্বেগ, দুশ্চিন্তার মতো বিষয়গুলোও ক্রমে ক্রমে রূপ নিতে পারে ব্যাধিতে। শারীরিক ব্যাধির মতো মানসিক ব্যাধিরও রয়েছে অনেকগুলো প্রকার, ছোট বড় মিলিয়ে ২০০ থেকেও বেশি।

সর্দি-কাশি থেকে ক্যান্সার পর্যন্ত শারীরিক রোগ যেমন ছোট বড় বিভিন্ন রকম হয় তেমন মানসিক রোগও। শারীরিক অসুস্থতার মতো উপসর্গ হয়ত দেখা যায় না, বাইরে থেকে দিব্যি সুস্থ দেখতে মানুষটা ভেতরে ভেতরে যন্ত্রণা চেপে মরে যেতে থাকে। বুঝতেও পারে না, বুঝাতেও পারে না।  কেউ যদি বলেও যে তার মানসিক অবস্থা ভালো না বা সে ভাল বোধ করছে না তবে তার কাছের মানুষরা বেশিরভাগ সময়ই পাত্তা দেয় না সেসব বিষয়, মনে করে, এ এমন কিছু না। শারীরিক সমস্যা নিয়ে আমরা যতটা সচেতন, মানসিক সমস্যা নিয়ে তার ছিটেফোঁটাও নই। সামান্য শারীরিক সমস্যা হলেও মুঠো মুঠো ওষুধ গিলতে পারি। অথচ গোটা শরীরকে পরিচালিত করে যে মস্তিষ্ক তাকে যাচ্ছেতাই অবহেলা করতে পারি।

এই মস্তিষ্কের অসুস্থতাই মূলত মানসিক সমস্যা, যেটা আমরা বেমালুম এড়িয়ে যেতে চাই। অথচ মানসিক স্ট্রেস থেকে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যেতে থাকে। যা আরো ভয়াবহ রূপ নিতে পারে। এই করোনাকালে ঘরবন্দি থেকে জনজীবন হাঁপিয়ে উঠেছে। বন্দিদশার প্রভাব পড়ছে মানসিক স্বাস্থ্যেও। বদ্ধ পরিবেশের নির্জীবতায় গ্রাস করছে হতাশা। ঘরে আটকে থেকে মন-মেজাজ খিটখিটে হয়ে যাচ্ছে। এই সব ছোটখাটো সমস্যাই যেন মানসিক ব্যাধিতে পরিণত না হয় তার জন্য আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের ব্যাপারে অধিক যত্নশীল হওয়া উচিত। শারীরিক সমস্যার মতো মানসিক সমস্যাকেও তাই সমান গুরুত্ব দেওয়া উচিত। মানসিক স্বাস্থ্যের ব্যাপারে উদাসীন না থেকে বরং যে কোন সমস্যাতে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া জরুরি।

আকলিমা আক্তার সোমা, শিক্ষার্থী, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়

aklimasuma795@gmail.com