কৃষকের স্বার্থে কৃষির মূল্যনীতি চাই

ঢাকা, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

কৃষকের স্বার্থে কৃষির মূল্যনীতি চাই

মুহাম্মদ শফিকুর রহমান ৯:৩৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ১০, ২০১৯

print
কৃষকের স্বার্থে কৃষির মূল্যনীতি চাই

সরকারের ধান, চাল সংগ্রহের মূল উদ্দেশ্য হলো, বাজার স্থিতিশীল রেখে কৃষকের ফসলের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করা। নিঃসন্দেহে এটা ভালো উদ্যোগ। তবে প্রশ্ন হলো, আসলেই কৃষকের স্বার্থরক্ষা হচ্ছে কি? কৃষক ন্যায্যমূল্য পাচ্ছে কি? একটা উদাহরণ দিলেই বিষয়টা পরিষ্কার হয়ে যাবে। বর্তমানে প্রতি মণ স্বর্ণা-৫ জাতের ধান ৬৩০ থেকে ৬৮০, রনজিত ৬৭০ থেকে ৬৯০, বিআর ৬৬০ থেকে ৭০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। তাহলে প্রতি কেজির দাম পড়ে ১৮ টাকা ৯২ পয়সা।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের হিসাবে এবার প্রতি কেজি আমন ধান উৎপাদন ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫ টাকা ৩০ পয়সা। এ হিসাবে কৃষকের লোকসান হচ্ছে ৬ টাকারও বেশি। ২০১৮-তে উৎপাদন খরচ নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩৪ টাকা, যা ২০১৭-তে ছিল ৩৭ টাকা। উৎপাদনের সব উপকরণের খরচ বেড়েছে। অথচ উৎপাদন ব্যয় বাড়েনি। অদ্ভুত ব্যাপার বটে! এটা স্পষ্টত অসংগতি। কৃষক এতে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। কৃষি খাতে ভর্তুকি নিয়ে নানা কথা হয়। কিন্তু আজও কৃষিপণ্য মূল্যনীতি হয়নি। কৃষি মূল্য কমিশনও নেই, যারা কৃষকের ফসলের সঠিক উৎপাদন খরচ নির্ধারণ করবে। পণ্য মূল্য নির্ধারণ করবে।

এখনই সময়, কৃষকের দিকে নজর দিতে হবে। কৃষকের স্বার্থ দেখতে হবে সবার আগে। যে কোনো মূল্যেই হোক, কৃষকের সামান্য হলেও লাভের ব্যবস্থা করে দিতে হবে। অন্যথায় লোকসান দিয়ে কেন সে দিনের পর দিন উৎপাদন করে যাবে?

মুহাম্মদ শফিকুর রহমান
বানারীপাড়া, বরিশাল