কলেজশিক্ষকদের এমপিওভুক্তি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬

কলেজশিক্ষকদের এমপিওভুক্তি

মামুন অর রশিদ ৭:৩৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৯

print
কলেজশিক্ষকদের এমপিওভুক্তি

উচ্চশিক্ষা বিস্তারের লক্ষ্যে ও গ্রামাঞ্চলে গরিব মেধাবী শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষা লাভের সুবিধার্থে সরকার বেসরকারি কলেজগুলো অনার্স-মাস্টার্স কোর্স চালু করে ১৯৯৩ সালে। কিন্তু দুঃখের বিষয়, দীর্ঘ ২৭ বছর অতিবাহিত হয়ে গেলেও উচ্চশিক্ষা দানে নিয়োজিত এই শিক্ষকদের আজও এমপিওভুক্ত করা হয়নি। শুধু নীতিমালার দোহাই দিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলো কালক্ষেপণ করছে। এতে বেতনবঞ্চিত হয়ে শিক্ষকরা একরকম মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

অনার্স-মাস্টার্স কোর্সের প্রায় তিন লাখ শিক্ষার্থীকে শিক্ষাদানে নিয়োজিত ৩ হাজার ৫০০ জন শিক্ষক সরকারি বিধি মোতাবেক নিয়োগ পেয়েও সাংবিধানিক মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত। দীর্ঘদিনের দাবি আদায়ে শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, সংসদীয় স্থায়ী কমিটি, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে এসব শিক্ষক এমপিওভুক্তি প্রদানের জন্য একাধিকবার সুপারিশ করেছেন। কিন্তু শিক্ষা মন্ত্রণালয় শুধু সরকারি নীতিমালার অজুহাতে কোনো সুপারিশ এখনো পর্যন্ত বাস্তবায়ন করেনি।

সম্প্রতি হাইকোর্ট অনার্স-মাস্টার্স পর্যায়ে কর্মরত শিক্ষকদের জনবল কাঠামোতে অন্তর্ভুক্ত করে এমপিওভুক্তি প্রদানের জন্য মাউশি ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিলেও সেটি কার্যকর হয়নি।

২০১৮ সালে নতুন জনবল কাঠামো প্রণয়ন করা হলেও হাইকোর্টের রায় অমান্য করে ২০১৩ সালের জনবল কাঠামোর অজুহাত দেখিয়ে শিক্ষা অধিদপ্তর একটি গোঁজামিল নিষ্পত্তির আদেশ দেয়। প্রধানমন্ত্রী, নতুন শিক্ষামন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সব দপ্তরের কাছে আমাদের বিনীত অনুরোধ, উচ্চশিক্ষা দানে নিয়োজিত এসব শিক্ষকের জন্য অবিলম্বে আলাদা নীতিমালা প্রণয়ন করে তাদের এমপিওভুক্তির ব্যবস্থা করা হোক।

প্রভাষক, কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজ, গাজীপুর।